বুধবার   ২২ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৯ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
সরকারের ধারাবাহিকতায় গণতন্ত্র সূচকে বাংলাদেশের ৮ ধাপ অগ্রগতি ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয় বাস্তব : প্রধানমন্ত্রী এসকে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ শুক্রবার টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী থাইল্যান্ড-কম্বোডিয়া যাচ্ছেন শিল্পমন্ত্রী যশোরে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেকের জানাজা সম্পন্ন ই-পাসপোর্টে মানুষ আর ধোঁকায় পড়বে না: প্রধানমন্ত্রী বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ উদ্বোধন ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার করা মামলার রায় কাল পাসপোর্ট বহির্বিশ্বে একটি দেশের মর্যাদা নির্দেশক: রাষ্ট্রপতি ই-পাসপোর্ট চালু হচ্ছে আজ, উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ডিগ্রি পাস ছাড়া ফাজিল মাদ্রাসার সভাপতি হওয়া যাবে না প্রয়োজনে শিক্ষকদের বিদেশে পাঠান : প্রধানমন্ত্রী শিল্প-কারখানার পাশে জলাধার থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী কারিগরি শিক্ষার উন্নয়নসহ একনেকে ৮ প্রকল্প অনুমোদন যশোর-৬ আসনের এমপি ইসমত আর নেই,প্রধানমন্ত্রীর গভীর শোক আবরার হত্যা : অভিযোগ গঠন ৩০ জানুয়ারি শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টায় পাঁচ জনের মৃত্যুদণ্ড ভারত থেকে পেঁয়াজ কেনার কোনও সুযোগ নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী

লালন শাহ’র শহরে যানজট সমাধানে চার লেন

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  

বাউল সম্রাট লালন শাহ’র তীর্থভূমি ও দেশের সাহিত্য সংস্কৃতির রাজধানী হিসেবে পরিচিত কুষ্টিয়া শহরও এখন যানজটের শিকার। ফলে এ শহরকে যানজট মুক্ত ও সড়ক যোগাযোগ নিরাপদ করতে প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে। প্রকল্পের আওতায় কুষ্টিয়া শহর ও বাজার অংশের ১৬ দশমিক ৪৮ কিলোমিটার সড়ক চার লেন এবং ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া-পাকশী-দাশুরিয়া জাতীয় মহাসড়কের বাকি ২৮ দশমিক ৮৪ কিলোমিটার সড়কাংশ যথাযথ মানে উন্নীত করা হবে।

ইতোমধ্যে ‘ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া-পাকশী-দাশুরিয়া জাতীয় মহাসড়কের (এন-৭০৪) কুষ্টিয়া শহরাংশ চার লেনে উন্নীতকরণসহ অবশিষ্টাংশ যথাযথ মানে উন্নীতকরণ’ শিরোনামে একটি প্রকল্প সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়/সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ উদ্যোগী হয়ে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠিয়েছে। এখন এটি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় উঠার অপেক্ষায় রয়েছে।

প্রকল্পটি সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদফতর বাস্তবায়ন করবে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে ২০২২ সালের জুনে এ প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রস্তাব করা হয়েছে। আর এতে ব্যয় হবে ৫৭৪ কোটি ১৬ লাখ ৯৫ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে পরিকল্পনা কমিশনের সুপারিশ হলো, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে কুষ্টিয়া জেলার শহরাংশে চার লেনে উন্নীত এবং সড়কের প্রস্তাবিত অংশে প্রশস্ত ও মজবুত করা সম্ভব হবে। এতে কুষ্টিয়া শহরের যানজট কমানোসহ মূল সড়কটির উন্নত ও নিরাপদ যোগাযোগ স্থাপিত হবে।

প্রকল্পের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করে সওজ অধিদফতর বলছে, ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া-পাকশী-দাশুরিয়া সড়কটি একটি জাতীয় মহাসড়ক, যার মোট দৈর্ঘ্য ৮১ দশমিক ৭২ কিলোমিটার। এ মহাসড়কটি একদিকে কুষ্টিয়া শহর বাইপাস এবং অন্যদিকে কুষ্টিয়া শহরের মধ্য দিয়ে লালন শাহ সেতুর ওপর দিয়ে রাজশাহীসহ উত্তরাঞ্চলের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করছে। সড়কটির কুষ্টিয়া শহরাংশে জেলা প্রশাসন, বিচার ও পুলিশ লাইনসহ গুরুত্বপূর্ণ সরকারি কার্যালয় ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থাকায় কুষ্টিয়া শহরের মধ্যে প্রায়ই যানজট লেগে থাকে।

অন্যদিকে এ সড়কের পাশে অবস্থিত কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়সহ হাট-বাজারের অংশ ও ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকগুলো অপ্রশস্ত। লালন শাহ সেতুর কুষ্টিয়া অংশের এপ্রোচ দুর্বল। নিরাপদ ও উন্নত সড়ক যোগাযোগের জন্য প্রস্তাবিত অংশগুলো মজবুত করাসহ হার্ড শোল্ডার প্রশস্ত করা প্রয়োজন। এ পরিপ্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত সড়কটির মোট ৪১ দশমিক ২২ কিলোমিটার অর্থাৎ কুষ্টিয়া শহর ও বাজার অংশের ১৬ দশমিক ৪৮ কিলোমিটার চার লেন এবং ২৮ দশমিক ৮৪ কিলোমিটার সড়কাংশ যথাযথ মানে উন্নীত করার লক্ষ্যে এ প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে।

কুষ্টিয়া জেলার সদর, মিরপুর ও ভেড়ামারা উপজেলায় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। এ প্রকল্পের আওতায় সড়ক বাঁধ উঁচু করা বা মাটির কাজ প্রশস্ত করা, বিদ্যমান পেভমেন্ট প্রশস্ত করা, বিদ্যমান পেভমেন্ট মজবুত করা, পেভমেন্ট পুনঃনির্মাণ করা, সার্ফেসিং, হার্ড শোল্ডার নির্মাণ, আরসিসি বক্স কালভার্ট নির্মাণ ১৩টি, ইউ ড্রেন নির্মাণ, ফুটপাথ নির্মাণ, বিদ্যমান ড্রেনের ওপর কভার/স্লাব নির্মাণ, বাস-বে নির্মাণ, ইন্টারসেকশন উন্নয়ন, জেনারেল অ্যান্ড সাইট ফ্যাসিলিটিস, নির্মাণকালীন রক্ষণাবেক্ষণ, ইউটিলিটি স্থানান্তর, সাইন, সিগন্যাল, গাইড পোস্ট স্থাপন ইত্যাদি করা হবে।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর