• বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১২ ১৪২৭

  • || ১৩ রজব ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
সাত কলেজের পরীক্ষা চলবে: শিক্ষা মন্ত্রণালয় কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে সাধারণ মানুষও চিকিৎসা পাবেন: আইজিপি জনগণ ভালোবেসে আমাদের সরকার গঠনের সু্যোগ দিয়েছে: কাদের সাত কলেজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত সন্ধ্যায় বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী ‘পাটের উৎপাদন বাড়াতে বীজ সরবরাহ নিশ্চিত করা হচ্ছে’ দেশে করোনায় ১৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯৯ কমিশন বাণিজ্যের ধারা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে: সেতুমন্ত্রী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের পরীক্ষা স্থগিত ভবিষ্যতে বাংলাদেশেও তৈরি হবে যুদ্ধবিমান: প্রধানমন্ত্রী দেশে করোনায় ৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৬৬ বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলছে ২৪ মে: শিক্ষামন্ত্রী হল খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত ৫-৬ দিনের মধ্যেই: মন্ত্রিপরিষদ সচিব এক মাসের মধ্যে চালের বাজার স্বাভাবিক হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৩৫০ এটিএম শামসুজ্জামান আর নেই এখন ঘরে ঘরে মানুষ ডিজিটাল সেবার সুবিধা পাচ্ছে: বাণিজ্যমন্ত্রী সামিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে করা মামলার আদেশ ২৩ ফেব্রুয়ারি করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯১ খাদ্যে ভেজালকারীদের কঠোর হাতে দমন করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

শাহজালালের রাডারের আয়ু শেষ, আসছে ৭৩০ কোটির প্রকল্প

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০২১  

বাংলাদেশে বিমান পরিবহনের প্রবেশদ্বার ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। এ বিমানবন্দরের বর্তমান সার্ভিলেন্স সিস্টেমটি (নজরদারি ব্যবস্থা) প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি রাডারের সমন্বয়ে গঠিত। ইতোমধ্যে এই রাডার দুটির আয়ুষ্কাল শেষ হয়ে গেছে। এই রাডার ব্যবস্থাটি আপগ্রেড করে দীর্ঘমেয়াদে চাহিদা পূরণ করা সম্ভব নয়। প্রয়োজনীয়তা থাকলেও আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে রাডার দুটি ২৪ ঘণ্টা চালু রাখা দুরূহ হয়ে পড়েছে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র আরও বলছে, সাম্প্রতিক সময়ে পুরোনো সেকেন্ডারি রাডার আপগ্রেড করা হলেও এটি কনভেনশনাল এসএসআর হওয়াতে তা দিয়ে আইকাওয়ের মান বজায় রাখা সম্ভব নয়। তাই পুরোনো এল-ব্যান্ড প্রাইমারি রাডারকে এস-ব্রান্ডে উন্নয়ন এবং কনভেনশনাল সেকেন্ডারি রাডারকে মোড এস-এ রূপান্তর করা অত্যন্ত জরুরি। এ লক্ষ্যে একটি প্রকল্প গ্রহণের উদ্যোগও নেয়া হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আকাশসীমায় নিরাপদে ও নির্বিঘ্নে বিমান চলাচলের সুবিধা সৃষ্টির লক্ষ্যে ‘হযরত শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সিএনএস-এটিএম (কমিউনিকেশন, নেভিগেশন ও সার্ভিলেন্স-এয়ার ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট) সিস্টেমসহ রাডার স্থাপন’ নামে একটি প্রকল্প গ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। প্রাথমিকভাবে এর খরচ ধরা হয়েছে ৭৩০ কোটি ৫৩ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। সম্পূর্ণ নিজেদের খরচে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বেবিচক। ২০২১ সালের মার্চ থেকে ২০২৩ সালের জুন মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নথিপত্র প্রস্তুত করা হচ্ছে।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (পরিকল্পনা) লুবনা ইয়াসমীন বলেন, ‘এ রকম কোনো প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়নি। এটা এখনো প্রক্রিয়াকরণ পর্যায়ে আছে।’

বরগুনার আলো