বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৪ ১৪২৬   ০৩ রজব ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আমার কাছে রিপোর্ট আসছে, কাউকে ছাড়ব না : প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় কিস্তির ২৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা বিটিআরসিকে দিল রবি মাধ্যমিক পর্যন্ত বিজ্ঞান বাধ্যতামূলকের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওপর নজরদারি বাড়াতে বললেন প্রধানমন্ত্রী বরগুনায় ওয়ারেন্ট ভুক্ত দুই আসামী গ্রেপ্তার আজকের স্বর্ণপদক প্রাপ্তরা ২০৪১ এর বাংলাদেশ গড়ার কারিগর যে কোন অর্জনের পেছনে দৃঢ় মনোবল এবং আত্মবিশ্বাস গুরুত্বপূর্ণ ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী আজ ১৭২ শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ, নিহত ১৭ পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ বহাল ৭ মার্চ জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় ১৪ দিনেই ভালো হচ্ছেন করোনা রোগী : আইইডিসিআর মুশফিক-নাঈমে ইনিংস ব্যবধানে দূর্দান্ত জয় টাইগারদের পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস আজ রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় জগো বাহিনীর প্রধানের ফাঁসি, ১১ জনের যাবজ্জীবন এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ করোনামুক্ত: আইইডিসিআর লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে থেকে দায়িত্ব পালন করতে বললেন রাষ্ট্রপতি নাঈমুল আবরার হত্যা : ৪ আসামিকে গ্রেফতারের নির্দেশ
৯৮৫

শিশুর উপর দিয়ে চলে গেল একাধিক ট্রেন, তারপরও জীবিত সেই শিশু

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৪ আগস্ট ২০১৯  

কয়েক মাস বয়সী এক শিশুর উপর দিয়েই একের পর এক চলে গেছে দ্রুতগামী ট্রেন। তারপরও শিশুটি জীবিত আছে। ঘটনাটি শুনে অনেকের কাছে আজব মনে হলেও ঘটনা সত্য।

ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে ৪৫ কিলোমিটার দূরে তিন মাইল হাট ও মাগুরজান স্টেশনের মাঝের অংশে বৃহস্পতিবার রাতে সেখানে নিয়ম মাফিক লাইন যাচাই করছিলেন দু'জন ট্র্যাকম্যান। সেই সময়েই তাদের নজরে আসে ছোট্ট কাপড়ের পুঁটলি। কাপড়টা ফাঁক করতেই চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় ট্রাকম্যানদের। লাইনের মাঝে কাপড়ে মোড়া মাত্র কয়েক মাস বয়সের ছোট্ট মেয়ে শিশু। সারা গায়ে আঘাতের চিহ্ন। সঙ্গে সঙ্গে রেলের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানান তারা। তাদেরই উদ্যোগে প্রথমে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় ছোট্ট শিশুটিকে। ভোরে তাকে রেল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কে বা কারা শিশুটিকে লাইনের মাঝে ফেলে রেখে গেল, তাই নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

তবে এখানেই ধোঁয়াশার শেষ নয়। বৃহস্পতিবার রাতে শিলিগুড়ির নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে প্রায় ২৬ কিলোমিটার দূরে চটহাট স্টেশন থেকে উদ্ধার হয় এক অজ্ঞাতপরিচয় নারীর দেহ। 

রেলকর্মীদের অনুমান, ওই নারীই শিশুটির মা। নারীকে খুন করার পর লাইনে বেশ কিছুটা এগিয়ে এসে শিশুটিকে রেখে যাওয়া হয়েছে বলে মনে করছেন তারা। ট্রেন থেকে বাচ্চাটিকে ফেলে দেয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলেই মনে করছে পুলিশ। তাছাড়া ট্রেন থেকে কোনো শিশু পড়ে যাওয়ারও কোনো খবর নেই বলে জানিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। তাতেই আরো জোরালো হচ্ছে জল্পনা।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, শিশুটির মাথা, পিঠ ও হাতে চোট রয়েছে। আপাতত রেল হাসপাতালে সুস্থ রয়েছে শিশুটি। তবে, অভ্যন্তরীণ আঘাত আছে কিনা সে বিষয়ে এখনই বলতে পারছেন না চিকিত্সকরা। রেল হাসপাতালে চিকিত্সকদের কড়া নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে শিশুটিকে। সুস্থ হওয়ার পরে শিশুটিকে হোমে স্থানান্তরিত করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর