বুধবার   ২৯ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৬ ১৪২৬   ০৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
২০২৪ সালে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাবে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী জীবাশ্ম জ্বালানি নিজেদের উন্নয়নে ব্যবহৃত হবে: প্রধানমন্ত্রী বিডিএফে আজ উপস্থাপন অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা সিজিসির সংযোজন ও সংশোধন অনুমোদন ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে চলবে ইলেক্ট্রিক ট্রেন: সংসদে রেলমন্ত্রী প্রাথমিকে নতুন শিক্ষকদের যোগদান যথাসময়ে সোলেইমানি হত্যার নীল নকশাকারী বিমান দুর্ঘটনায় নিহত এক বিদ্যালয়ে একবারই ভর্তি ফি, হচ্ছে নীতিমালা শুরু হলো ৪৪তম কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা মৌলভীবাজারে অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের ৫ জন নিহত একনেকে ৯ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাস: সর্বত্র সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আমেরিকা ও ইসরায়েলের কমান্ডাররাও পালানোর পথ খুঁজে পাবে না সাকিবকে ওজন কমাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী মুজিববর্ষে সব সরকারি কলেজে বসবে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য শিল্প-বৈদেশিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের নামজারি ৭ দিনে মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে যেসব খাবার নেহা-আদিত্যর বিয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি সোয়া ৯ কোটি টাকা আত্মসাতে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা আড়ংয়ের ট্রায়াল রুমে গোপনে ভিডিও,গ্রেপ্তার -১
১৮

সচিবালয়ের আশপাশে হর্ন বাজালেই জেল-জরিমানা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  


  
বাংলাদেশ সচিবালয়ের আশেপাশে ঘোষিত ‘নীরব এলাকায়’ হর্ন বাজালেই জেল-জরিমানা করা হবে। সচিবালয়ের চারপাশের এলাকাকে ১৭ ডিসেম্বর থেকে ‘নো হর্ন জোন’ বা ‘নীরব জোন’ ঘোষণা করেছে সরকার। ১৭ ডিসেম্বরের পর থেকে বাংলাদেশ সচিবালয়ের চারপাশের এলাকায় হর্ন বাজালে এক মাসের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ড হতে পারে।

রবিবার (৮ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে ‘নো হর্ন জোন’ এলাকা কার্যকর করতে এক আলোচনা সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. বিল্লাল হোসেন এ তথ্য জানান।

গত ২৫ নভেম্বর অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয়ের এক সভায় সচিবালয়ের আশপাশের এলাকাকে ‘নীরব জোন’ হিসেবে কার্যকরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের ওই সভায় এ বছরের ১৭ ডিসেম্বর থেকে সচিবালয়ের চারদিক ‘নীরব জোন’ হিসেবে কার্যকর করার সিদ্ধান্ত হয়।

বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইনের অধীনে প্রণীত ‘শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণ বিধিমালা ২০০৬’ অনুযায়ী নীরব এলাকা বলতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, অফিস আদালত বা একই জাতীয় অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের চারিদিকের ১০০ মিটার পর্যন্ত এলাকাকে বোঝায়।

অতিরিক্ত সচিব মো. বিল্লাল হোসেন বলেন, ‘শব্দ দূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা অনুযায়ী ‘নীরব জোন’ এলাকায় হর্ন বাজালে প্রথমবার সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। একই ধরনের অপরাধ পরবর্তী সময়ে করলে সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থ দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।’

তিনি বলেন, ‘নীরব জোন’ ঘোষণার সময় থেকেই মোবাইল কোর্ট রাখতে হবে। সচেতনতা বৃদ্ধি উপলক্ষে ও প্রচার-প্রচারণার জন্য টেলিভিশনে স্ক্রল, মোবাইলে ম্যাসেজ প্রদান, সোশ্যাল মিডিয়ায় (ফেসবুক) প্রচারণা ও লিফলেট বিতরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হবে।

অতিরিক্ত সচিব আরও বলেন, এ বিষয়ে সব মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেওয়া হবে। যাতে করে তাদের কর্মকর্তাদের গাড়ির চালকরা বাংলাদেশ সচিবালয়ের চারপাশে হর্ন না বাজায়। লিফলেট বিতরণ করা হবে সচিবালয়ের ভেতরেও। এছাড়া বাস চালকদের সচেতন করতে গুলিস্তান ও মতিঝিল এলাকায় লিফলেট বিতরণ করা হবে।

এ সভায় পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক সাদেকুল ইসলাম বলেন, আগামী ১১ ডিসেম্বর থেকে সচেতনতা বৃদ্ধিতে লিফলেট বিলি করবেন তারা।

আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পল্টন মোড়, সচিবালয় লিংক রোড, জিরো পয়েন্ট এলাকা ‘নীরব জোন’ হিসেবে গাড়ির হর্ন বাজানো যাবে না। এজন্য সচিবালয়ের চারপাশে অর্থাৎ পল্টন মোড়, জিরো পয়েন্ট, সচিবালয় লিংক রোড হয়ে জিরো পয়েন্ট এলাকায় নীরব চিহ্নিত সাইন বোর্ড স্থাপন করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন— সভায় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ (ডিটিসিএ), বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) প্রতিনিধিরা।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর