বুধবার   ০১ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৭ ১৪২৬   ০৭ শা'বান ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা অক্ষরে অক্ষরে পালন করুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরগুনায় সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত
৭২৬

সরকারি প্রাথমিকে সহকারীদের মধ্য থেকেই প্রধান শিক্ষক

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯  

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, ‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন করে আর প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে না। দীর্ঘদিন ধরে সহকারী শিক্ষকরা পদোন্নতি না পেয়ে তাঁরা মনে করছেন, জীবনে তাঁদের আর পদোন্নতি হবে না। এ কারণে তাঁরা হতাশার মধ্যে দিন পার করছেন। কিন্তু তাঁদের বলতে চাই, সরকার এ পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটিয়ে সহকারী শিক্ষকদের মধ্য থেকে প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী থানা শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া শুরু করতে যাচ্ছে।’

গতকাল সোমবার রাজধানীর প্রাইমারি টিচার্স ইনস্টিটিউটে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) আয়োজিত ‘উদ্ভাবনী মেলা ও শোকেসিং-২০১৯’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা বাংলা পড়তে পারে না—এটি আমাদের ব্যর্থতা। আমাদের মনিটরিং ব্যবস্থা বেশ দুর্বল থাকায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এ মনিটরিং ব্যবস্থাকে নতুনভাবে সাজাতে হবে। যার যা দায়িত্ব তা তাকে পালন করতে হবে।’

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম-আল-হাসেন বলেন, যত বেশি উদ্ভাবন হবে তত বেশি শিক্ষার মান বৃদ্ধি পাবে। এতে জাতির উন্নতি ঘটবে। প্রাথমিক শিক্ষাকে আনন্দঘন করে তুলতে না পারলে গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করা যাবে না। 

ডিপিই মহাপরিচালক এ এফ এম মনজুর কাদির বলেন, শুধু গতানুগতিক কাজ করে গেলেই হবে না, এর বাইরে শিক্ষকদের ভাবতে হবে। তাদের প্রতিষ্ঠান ও শিশুদের জন্য নতুন কী করা যায় সেটা নিয়ে ভাবতে হবে। 

এ ছাড়া বক্তব্য দেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও প্রধান উদ্ভাবনী কর্মকর্তা বদরুল হাসান বাবুল।

এ বছরের মেলায় ১৫টি উদ্ভাবন প্রদর্শন করা হচ্ছে। সেগুলোর মধ্যে ক্লাসরুম লাইব্রেরি, দৃষ্টি সংযত ও মনোযোগ, মোবাইল মাসি (বিদ্যালয় বন্ধু), প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তথ্য আদান-প্রদানে অনলাইন সার্ভিস, খেলার ছলে গণিত শেখা, লেখাপড়ার পাশাপাশি জীবন দক্ষতা অর্জন ইত্যাদি।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর