বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার পদ্মাসেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান সেনা কল্যাণ সংস্থার চারটি স্থাপনা উদ্বোধন মালিতে জঙ্গি হামলায় ২৪ সেনা নিহত কন্যা সন্তানের জনক হলেন তামিম কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সভা আজ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী : ৫৪ স্থানে বসছে ক্ষণ গণনার ডিসপ্লে পদ্মা সেতুর ১৬তম স্প্যান বসছে আজ কার্গো বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান আসছে আজ আজ দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী আইসিসি রায় দিলে সু চি অন্য দেশে পালালেও গ্রেফতার হবেন: শাহরিয়ার পেঁয়াজ পৌঁছাবে মঙ্গলবার, নাগালে আসবে দাম : বাণিজ্য সচিব রিফাত হত্যা: পেছালো ১৪ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন
৬৪৭

সরকারি প্রাথমিকে সহকারীদের মধ্য থেকেই প্রধান শিক্ষক

প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯  

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, ‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন করে আর প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে না। দীর্ঘদিন ধরে সহকারী শিক্ষকরা পদোন্নতি না পেয়ে তাঁরা মনে করছেন, জীবনে তাঁদের আর পদোন্নতি হবে না। এ কারণে তাঁরা হতাশার মধ্যে দিন পার করছেন। কিন্তু তাঁদের বলতে চাই, সরকার এ পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটিয়ে সহকারী শিক্ষকদের মধ্য থেকে প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী থানা শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া শুরু করতে যাচ্ছে।’

গতকাল সোমবার রাজধানীর প্রাইমারি টিচার্স ইনস্টিটিউটে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) আয়োজিত ‘উদ্ভাবনী মেলা ও শোকেসিং-২০১৯’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা বাংলা পড়তে পারে না—এটি আমাদের ব্যর্থতা। আমাদের মনিটরিং ব্যবস্থা বেশ দুর্বল থাকায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এ মনিটরিং ব্যবস্থাকে নতুনভাবে সাজাতে হবে। যার যা দায়িত্ব তা তাকে পালন করতে হবে।’

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম-আল-হাসেন বলেন, যত বেশি উদ্ভাবন হবে তত বেশি শিক্ষার মান বৃদ্ধি পাবে। এতে জাতির উন্নতি ঘটবে। প্রাথমিক শিক্ষাকে আনন্দঘন করে তুলতে না পারলে গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করা যাবে না। 

ডিপিই মহাপরিচালক এ এফ এম মনজুর কাদির বলেন, শুধু গতানুগতিক কাজ করে গেলেই হবে না, এর বাইরে শিক্ষকদের ভাবতে হবে। তাদের প্রতিষ্ঠান ও শিশুদের জন্য নতুন কী করা যায় সেটা নিয়ে ভাবতে হবে। 

এ ছাড়া বক্তব্য দেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও প্রধান উদ্ভাবনী কর্মকর্তা বদরুল হাসান বাবুল।

এ বছরের মেলায় ১৫টি উদ্ভাবন প্রদর্শন করা হচ্ছে। সেগুলোর মধ্যে ক্লাসরুম লাইব্রেরি, দৃষ্টি সংযত ও মনোযোগ, মোবাইল মাসি (বিদ্যালয় বন্ধু), প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তথ্য আদান-প্রদানে অনলাইন সার্ভিস, খেলার ছলে গণিত শেখা, লেখাপড়ার পাশাপাশি জীবন দক্ষতা অর্জন ইত্যাদি।

এই বিভাগের আরো খবর