সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৬ ১৪২৬   ০৫ শা'বান ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা অক্ষরে অক্ষরে পালন করুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরগুনায় সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত করোনা ছোঁয়াচে, এক মিটার দূরত্বে থাকার পরামর্শ ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে ১০ দিন গণপরিবহন বন্ধ মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী
১০৩

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ‘ভাগ্নে’ পরিচয়ে মাসে দেড় কোটি টাকা চাঁদাবাজি

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

কক্সবাজার সৈকতের পর্যটন এলাকার 'অপরাধের কিং' হিসেবে পরিচিত কাজী রাসেল আহমদ নোবেলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার কলাতলীর সৈকত পাড়ার একটি নির্মাণাধীন বাসা থেকে রাসেল ও আরেক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মাসুম খান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ছবি তুলে সেই ছবি ছড়িয়ে 'মন্ত্রীর ভাগ্নে' পরিচয়ে তিনি পর্যটন এলাকার অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করতেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

কাজী রাসেল (৩৩) কক্সবাজার পৌরসভার কলাতলীর লাইটহাউজ এলাকার মৃত কাজী তোফায়েল আহমদের ছেলে। তিনি কলাতলী কটেজ মালিক সমিতির সভাপতি। তার সঙ্গে আটক আসমা হুসনা মীম (২৭) নামে যে নারীকে আটক করা হয় তিনি ঢাকার দোহারের জয়পাড়ার মৃত আবদুল মজিদের মেয়ে।

কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মাসুম খান বলেন, কক্সবাজার পর্যটন এলাকার কলাতলীর হোটেল-মোটেল জোনে দীর্ঘদিন ধরে দলীয় পরিচয়ে কাজী রাসেল নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিলেন। প্রায় সময় তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পাওয়া যেত। সম্প্রতি মোরশেদ নামের এক যুবককে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে রাসেল। ওই ঘটনায় তাকে এক নম্বর আসামি করে মডেল থানায় মামলাও হয়। তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে মীম নামে ঢাকার দোহারের এক কণ্ঠশিল্পীসহ তাকে আটক করা হয়েছে। এ সময় তারা ইয়াবা সেবন করছিল।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ইকবাল হোসাইন বলেন, কাজী রাসেলকে নারীসহ আটক করা হয়েছে। রাসেলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে। তাকে আটকের পর বিভিন্ন জায়গা থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। সবকিছু আমলে নিয়ে তদন্তপূর্বক পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর