সোমবার   ২৬ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ১০ ১৪২৬   ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে শিক্ষা নিতে হবে : স্পিকার ‘মুখরোচক কথায় দালালের খপ্পরে পড়ে বিদেশ যাবেন না’- প্রধানমন্ত্রী আজ কুমিল্লায় পারিবারিক কবরস্থানে মোজাফফর আহমদের দাফন অ্যামাজন পুড়ছে, আমরা যেন না পুড়ি: পরিবেশমন্ত্রী জেলা সরকার এখন সময়ের দাবি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওএসডি হচ্ছেন জামালপুরের সেই ডিসি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে: দীপু মনি সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধায় সিক্ত অধ্যাপক মোজাফফর বরগুনায় উচ্ছেদ অভিযানে জেলা প্রশাসন মোজাফফর আহমদের মরদেহে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা হাইভোল্টেজ ম্যাচে লড়বে লিভারপুল-আর্সেনাল গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে- কাদের আইভি রহমানের সমাধিতে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা আইভী রহমানের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ মোজাফফর আহমদের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক ৯০ ভাগ ডেঙ্গু রোগী বাড়ি ফিরেছে: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সরকার হাল ছাড়েনি: ওবায়দুল কাদের ২৩ আগস্টের ঘটনায় সেনাবাহিনী দায়ী নয়-ঢাবি উপাচার্য যে করেই হোক রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠাবোই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা বিজয় দিবসের আগেই: মন্ত্রী
১৪

২০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে কোকাকোলা

প্রকাশিত: ৯ আগস্ট ২০১৯  

আগামী পাঁচ বছরে বাংলাদেশে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করার প্রস্তাব দিয়েছেন কোকাকোলার প্রেসিডেন্ট ও প্রধান অপারেটিং অফিসার ব্রেইন জন স্মিথ। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করে এ প্রস্তাব রাখেন কোকাকোলার প্রেসিডেন্ট। 

এসময় বর্তমান কর ব্যবস্থায় বিদ্যমান সম্পূরক কর ও মুল্যসংযোজন কর হ্রাস করা যায় কি না-তা বিবেচনা করার জন্য অনুরোধ করেন ব্রেইন জন স্মিথ। জবাবে কোকাকোলার সম্পূরক কর হ্রাস করার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন অর্থমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, কোকাকোলার ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে বিশাল জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বাংলাদেশ ক্রমাগতভাবে অর্থনৈতিক খাতে উন্নতি সাধন করে চলেছে। চলতি অর্থবছরেই ৮ দশমিক ২৫ শতাংশ থেকে ৮ দশমিক ৩০ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের প্রত্যাশা করছি, যা ২০২৪ সাল নাগাদ দাঁড়াবে ১০ শতাংশ। এটা অব্যাহত থাকবে। 

তিনি বলেন, বিশ্বে যে কয়েকটি দেশের রফতানি আয় খুব দ্রুত বাড়ছে তার মধ্যে বাংলাদেশ একটি। গড় হিসেবে এক দশক ধরে দেশের রফতানি আয়ে দুই অংকের প্রবৃদ্ধি হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে অগ্রসরমাণ অর্থনীতির দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়। ওপরে আছে কেবল ভিয়েতনাম। বিশ্ববাণিজ্যের এ চিত্র উঠে এসেছে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার ‘ওয়ার্ল্ড ট্রেড স্ট্যাটিস্টিক্যাল রিভিউ-২০১৯’ শীর্ষক প্রতিবেদনে। এটি গত সপ্তাহে প্রকাশ করা হয়। 

সব মিলিয়ে বিশ্ববাণিজ্যে বাংলাদেশ এখন ৪২তম বড় রফতানিকারক দেশ। অন্যদিকে আমদানিতে বাংলাদেশের অবস্থান ৩০তম। সুতরাং বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ অত্যন্ত সুন্দর এবং অপার সম্ভাবনার দেশ বলেও মন্তব্য করেন অর্থমন্ত্রী। 

এই বিভাগের আরো খবর