রোববার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
১১০

৩০ কোটি টাকা দিলে রংপুর-৩ আসন ছেড়ে দিবেন তারেক, নির্বিকার সাদ!

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদকে জয়ী করতে জাতীয় পার্টিকে বিশেষ অফার দিয়েছে বিএনপি। লন্ডন থেকে বিএনপি মহাসচিব সাদ এরশাদকে এই প্যাকেজের কথা জানিয়েছেন।

জাতীয় পার্টি সূত্রে জানা গেছে, রংপুর-৩ আসনটি জাতীয় পার্টির ঘাঁটি হিসেবেই মানছেন বিএনপি নেতা তারেক রহমান। যার কারণে এই আসনে নিশ্চিত পরাজয় জেনেও দলীয় প্রার্থী বাদ দিয়ে অতিথি রিটা রহমানকে মনোনয়ন দিয়েছেন তারেক রহমান। মূলত বড় অংকের অর্থের বিনিময়ে রিটা মনোনয়ন বাগিয়ে নিয়েছেন বলে জানা যায়। রংপুর-৩ আসন নিয়ে দুতরফা মনোনয়ন বাণিজ্য করতে তাই মরিয়া হয়ে উঠেছেন তারেক রহমান। সেই লক্ষ্যে ৯ সেপ্টেম্বর সকালে ৩০ কোটি টাকার বিনিময়ে এই আসনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রত্যাহারের প্রস্তাব দিয়ে সাদ এরশাদকে ফোন করেন তারেক। তারেক রহমানের প্রস্তাব হলো, সাদ ৩০ কোটি টাকা দিলে বিএনপি রিটা রহমানের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করবে এবং নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে ভোট দিবেন বিএনপির কর্মীরা।

উপ-নির্বাচনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের প্রস্তাবের বিষয়ে জানতে চাইলে সাদ এরশাদ কোন মন্তব্য করতে চাননি। কিন্তু সাদ এরশাদের ব্যক্তিগত সহকারী সালাম শিকদারের সাথে আলাপ করে জানা যায়, রংপুরের নির্বাচনে জেনেশুনে দলীয় প্রার্থী দেয়নি বিএনপি। পরাজয় অনুমান করেই তারা এই কাজটি করেছে। তবে অবাক লাগছে, রাজনৈতিক দৈন্যদশার মধ্যেও চাঁদাবাজি ও মনোনয়ন বাণিজ্য থেকে বের হতে পারেনি বিএনপি। আজ সকালে সাদ স্যারকে ফোন করেছিলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

সালাম আরো বলেন, ফোন করে তারেক সাহেব নির্বাচনে সহায়তা করার নামে সাদ স্যারের কাছে ৩০ কোটি টাকা চেয়েছেন। তিনি বলেছেন, ৩০ কোটি টাকা দিলে নির্বাচনের শেষ সময়ে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করবেন তার দলের প্রার্থী। এছাড়া দলীয় ভোট সাদ এরশাদকে পাইয়ে দেয়ারও ওয়াদা করেছেন। তবে সাদ স্যার তারেক সাহেবকে কোন কথা দেননি। কারণ তারেক রহমানের প্রতারণা ও মনোনয়ন বাণিজ্য সম্পর্কে ভালোমতো জানেন সাদ স্যার। বিএনপির জেনে রাখা উচিত তারেক রহমানের পাতানো ফাঁদে কখনোই পা দিবে না জাতীয় পার্টি।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর