বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আজকের নবীন কর্মকর্তারাই হবেন ৪১ সালের সৈনিক : প্রধানমন্ত্রী ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বয়স্ক বাবা-মাকে না দেখলে জেল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে যারা ফখরুল-রিজভীসহ ১৩৫ জনের বিরুদ্ধে দুই মামলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে ‘কনসার্ট ফর ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এসক্যাপ অধিবেশনে যোগ দিতে শেখ হা‌সিনা‌কে আমন্ত্রণ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির ন্যায়বিচার-নিরাপত্তা দাবি অক্সফামের কৃষি আধুনিক হলেই মাথাপিছু আয় বাড়বে: কৃষিমন্ত্রী মাওলানা ভাসানীর জন্মবার্ষিকী আজ কাল নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে বললেন ওবায়দুল কাদের ‘ফুড চেইনের মাধ্যমে প্লাস্টিক শরীরে প্রবেশ করছে’ বিশাল জয়ে শুরু কুমিল্লার বঙ্গবন্ধু বিপিএল মিশন টাইম ম্যাগাজিনের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ গ্রেটা থানবার্গ বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে ৩০ কোটি ডলার দেবে এডিবি ‘বিদেশগামীদের জন্য চালু হচ্ছে প্রবাসী কর্মী বিমা’ প্রেষণে বদলি রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের ৯ জিএম জনতা ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ: আসামিকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ মাদককে দেশ ছাড়া করবো: আইজিপি বিটিসিএলের সব স্কুলের প্রাথমিক শাখা হবে ডিজিটাল
৭৫

৩০ বছরে সন্তান নিলে বাচ্চা হবে মেধাবী ও স্মার্ট

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  


সবারই স্বপ্ন থাকে পছন্দের মানুষের সঙ্গে নিজের একটি সংসার হবে। সে সংসার আনন্দ আর ভালোবাসায় ভরে থাকবে ছোট্ট একটি শিশুর হাসিতে। প্রথম সন্তান নিয়ে বাবা-মায়ের থাকে হাজারো স্বপ্ন ও প্রত্যাশা। 

আজকাল পড়াশোনা শেষ করে, চাকরি সামলে বিয়ে করতেই বেশ বয়স হচ্ছে মেয়েদের। আর মা হতে কিছুটা দেরিই হয়ে যাচ্ছে। অনেকেরই বয়স ৩০ পেরিয়েছে তবুও সন্তান নেওয়া হয়ে ওঠেনি। এমন সময় অনেকেই ভয় পান বেশি বয়সে সন্তান নিলে কেমন যেন হয়, তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সুস্থ থাকলে ৩০ বছরে সন্তান নিলেও তেমন সমস্যা হয় না। বরং বাচ্চা হবে মেধাবী ও স্মার্ট। 

যারা ৩০ বছরের পরে সন্তান জন্ম দেন তাদের জরায়ু ক্যান্সারের ঝুঁকিও কমে যায়। শিশুর জন্মের সময় মায়ের মানসিক ও শারীরিক উভয়ই সুস্থ থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বয়স হলে নারীদের সন্তান জন্ম দেওয়ার মানসিক প্রস্তুতিও থাকে। ফলে গর্ভের সন্তান ও নিজের যত্নে অনেক বেশি সচেতন থাকেন।  

শুধু ত্রিশের পরেই নয়, কোনো বয়সেই মা হওয়ার সময়টায় ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন ডি, ‍আয়রন সমৃদ্ধ পুষ্টিকর খাবার নিয়মিত খেতে হবে। পর্যাপ্ত বিশ্রাম ‍আর একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শমতো চলতে হবে।