• রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলছে: রেলমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৪৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৪০ জন বাস ভাড়া যৌক্তিক সমন্বয়, প্রজ্ঞাপন আজই: ওবায়দুল কাদের এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে এসএসসির ফল প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল ১২টার পরিবর্তে ১১টায় প্রকাশ হবে এসএসসির ফল করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭৬৪ পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কি.মি. দৃশ্যমান, বসল ৩০তম স্প্যান পদ্মা সেতুর ৩০তম স্প্যান বসছে আজ একদিনে সর্বোচ্চ আড়াই হাজার শনাক্ত, মৃত্যু ২৩ জনের বিকেল ৪টার মধ্যে বন্ধ করতে হবে দোকান-শপিংমল দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত দেশে একদিনে নতুন শনাক্ত ১৫৪১, মৃত্যু ২২ জীবন বাঁচাতে জীবিকাও সচল রাখতে হবে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০ জনের র‌্যাব-৮ এর অভিযানে মাদারীপুর থেকে জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার ২৪ ঘণ্টায় ২৪ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ছাড়াল ৩০ হাজার মমতাকে সহমর্মিতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফোন মোংলা ও পায়রা বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত
৪৬

৪ শতাংশ সুদে ঋণ পাবেন ক্ষতিগ্রস্ত আমচাষি

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২০  

 ‘আমচাষিদের সরাসরি বীজ বা সার দিয়ে প্রণোদনা দেওয়ার সুযোগ নেই তবে তাদের পণ্য বিক্রির ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত আমচাষিরা ৪ শতাংশ সুদে কৃষি ঋণ পাবে।’

শুক্রবার (২২ মে) ক্ষতিগ্রস্ত আম ও লিচু চাষিদের ব্যাপারে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানতে চাইলে কৃষি সচিব নাসিরুজ্জামান এসব কথা বলেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্যমতে, সিলেট ও ময়মনসিংহ বাদে দেশের ৪৩ জেলায় আম্পানের আঘাত লেগেছে। ১ লাখ ২৫ হাজার ৭৯৪ হেক্টর জমির মধ্যে ৪৮ হাজার ৬২১ হেক্টর আমের বাগান আক্রান্ত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এই ক্ষতির হিসাব ধরা হয়েছিল ৭ হাজার ৩৮৪ হেক্টর, যা শতকরায় ১০ ভাগ। তবে শুক্রবারের তথ্য বলছে, দেশের প্রায় অর্ধেক আম বাগান ঝড়ে আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে, ১৮ হাজার ৩২০ হেক্টর লিচু বাগানের মধ্যে ১০ হাজার ২১২ হেক্টরের লিচু আক্রান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার এই ক্ষতির পরিমাণ বলা হচ্ছিল ৪৭৩ হেক্টর, শতকরায় ৫ ভাগ। তবে শুক্রবারের তথ্য বলছে অর্ধেকের বেশি লিচু বাগান আক্রান্ত হয়েছে।

কৃষি সচিব নাসিরুজ্জামান জানান, অর্ধেক আম নষ্ট হয়নি। সাতক্ষীরায় ৭০ শতাংশ আম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রাজশাহীর বাঘা ও চারঘাট ১০ থেকে ১৫ শতাংশ, রাজশাহীতে ৫ থেকে ১০ শতাংশ। পুরো রাজশাহীর গড় করলে ১২ থেকে ১৩ শতাংশ হবে।

এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫ থেকে ৬ শতাংশ, দিনাজপুরে ৫ থেকে ৬ শতাংশ ও নওগাঁয় ৩ থেকে ৫ শতাংশ ক্ষতি হয়েছে। আর লিচুর ক্ষতির পরিমাণ ৫ থেকে ৭ শতাংশের বেশি হবে না। আর দিনাজপুরের লিচু এখনও পরিপক্ক হয়নি তাই ক্ষতির পরিমাণও কম বলেও জানান সচিব।

দেশের প্রায় অর্ধেক আম বাগান আক্রান্ত হয়েছে উল্লেখ করলে সচিব বলেন, ‘আক্রান্ত আর ক্ষতিগ্রস্ত এক বিষয় নয়। আক্রান্ত হচ্ছে পুরো এরিয়া। পুরো আক্রান্ত এলাকাই ক্ষতিগ্রস্ত নয়। অর্থাৎ ক্ষতির পরিমাণ এতো বেশি নয়।’

তিনি আরও বলেন,‘তাৎক্ষণিকভাবে আম কিনে ত্রাণের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করতে বলেছি। কারণ সাতক্ষীরার আম এখন পরিপক্ক। সাতক্ষীরায় প্রাণের আচারের একটি ফ্যাক্টরি আছে। তাদেরও অনুরোধ করেছি সেখান থেকে আম কিনতে। সেখানে কৃষক এখন ভালো আম ১০ টাকা কেজি বা ৪০০ টাকা মণে বিক্রি করছে। আর কিছুটা খারাপ মানের আম ৫ টাকা কেজিতে ২০০ টাকা মণে বিক্রি হচ্ছে।’

প্রণোদনার বিষয়ে জানতে চাইলে সচিব বলেন, ‘আমচাষিদের বীজ, সার ও কীটনাশক দিয়ে প্রণোদনা দেওয়া যায় না। তারা চাইলে আমরা ৪ শতাংশ সুদে ঋণ নিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করবো। এটি কৃষিঋণের মধ্যেই পড়বে। আগে ৪ শতাংশ সুদের মধ্যে ফসল অন্তর্ভুক্ত ছিল না, শুধুমাত্র মসলা জাতীয় ফসলের ক্ষেত্রে এই ঋণ দেওয়া হতো।’ বাংলাদেশ ব্যাংককে আমরা অনুরোধ করেছি। সব তফসিলি ব্যাংক থেকে কৃষি ঋণের আওতায় এই ঋণ পাওয়া যাবে বলেও জানান তিনি।

বরগুনার আলো
অর্থনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর