শনিবার   ১৭ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ২ ১৪২৬   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
মোটরসাইকেলসহ দুই চোর গ্রেফতার ডেঙ্গুজ্বর থেকে মুক্তি পেতে ‘স্টপ ডেঙ্গু’ অ্যাপ চালু দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার ১৪ বছর আজ মেসিহীন হার দিয়ে লা লিগা শুরু বার্সার আজ থেকে হজের ফিরতি ফ্লাইট শুরু কবি শামসুর রাহমানের ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ সোমবার ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কবিরা গুনাহকারীরা কি চিরকাল জাহান্নামে থাকবে? মিরপুরে বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে ২০ ইউনিট ১৯ হাজার ৪০০ পিস ইয়াবাসহ আটক দুই বাড়তি ভাড়া আদায়ের অপরাধে ১৭ পরিবহনকে জরিমানা ‘সবসময় যারা আমাদের বাড়িতে ঘোরাঘুরি করতো তারাই সেই খুনি’   হাতঘড়ির ফ্যাশন ফিরে এসেছে দেশে শেখ হাসিনার জীবনই এখন বেশি ঝুঁকিপূর্ণ : কাদের বিশ্বের আট গুরুত্বপূর্ণ শহরে ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন করা হবে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের জন্য প্রাথমিক দল ঘোষণা বাংলাদেশের জিরো টলারেন্স নীতিতে জঙ্গি দমন সম্ভব হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রবি শাস্ত্রীই কোচের দায়িত্বে থাকছেন: সিএসি মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের প্রতিশোধ নিতেই বঙ্গবন্ধু হত্যা: প্রধানমন্ত্রী ঢাকা-দিল্লির সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে
৫০৭

৬ উপায়ে কুরবানি হবে স্বাস্থ্যসম্মত

প্রকাশিত: ৬ আগস্ট ২০১৯  

কুরবানির হাটে গিয়ে পশু কেনা, ঈদের আগ পর্যন্ত বাড়িতে রাখা, কুরবানি দেওয়াতেই কিন্তু আপনার দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। কুরবানির পর আশপাশ পরিষ্কার রাখাটার গুরুদায়িত্ব কিন্তু আপনারই। কষ্টটাকে দূরে সরিয়ে দিয়ে স্বাস্থ্যসম্মতভাবে কুরবানির কাজ সম্পন্ন করার ৬ উপায় বাতলে দিচ্ছে টনিক।

১. পেশাদার কসাই দিয়ে কুরবানি দিবেন। এরা খুব তাড়াতাড়ি কাজ করতে পারার সাথে সাথে আপনার নির্দেশনা অনুসরণ করতে পারবে সহজেই। মাংস ঠিকভাবে টুকরো করা এবং হাড় ভেঙ্গে যেন মাংসের সাথে মিশে না যায় তাও নিশ্চিত করতে পারবেন তারা। এক্ষেত্রে আগে থেকে কসাইকে জানিয়ে সময় নিয়ে রাখুন।

২. কুরবানির আগে পশুকে ভালভাবে গোসল করিয়ে গা মুছে দিন।

৩. কুরবানির জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আগে থেকেই গুছিয়ে রাখুন। পশু জবাই করার সময় বাঁধার জন্য শক্ত দড়ি বা রশি, জবাই করার জন্য ধারালো চাপাতি ও বড় ছুরি, পশুর চামড়া ছাড়ানোর জন্য ছোট-বড় ছুরি, মাংস কাটার জন্য কাঠের গুড়ি, চাপাতি ও মাংস কাটার জায়গায় বিছিয়ে নেয়ার জন্য বড় পলিথিন কিংবা খেজুরের পাতার মাদুর, ইত্যাদি আগেই সংগ্রহ ও প্রস্তুত করে রাখুন।

৪. কুরবানির কাজ শেষ হলে প্রচুর পানি দিয়ে আশেপাশের এলাকা ভাল করে ধুয়ে দিন যেন কোনো রক্ত বা ময়লা আবর্জনা পড়ে না থাকে। সমস্ত ময়লা ভালভাবে প্যাকেটে মুড়ে ডাস্টবিনে ফেলুন। আশেপাশের এলাকার সাথে সাথে সিঁড়ি এবং লিফট পরিষ্কার করতেও ভুলবেন না যেন। এতে করে আপনি, আপনার প্রতিবেশী এবং পথচারীরা বিভিন্ন রোগ সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পাবে। গন্ধ দূর করতে ব্লিচিং পাউডার ছিটিয়ে দিতে পারেন।

৫. কুরবানির পশুর চামড়া দান বা বিক্রি করবেন কী না তা আগে থেকে ঠিক করে রাখুন। এবং কুরবানির পরপরই চামড়া দিয়ে দিন। এতে করে কুরবানির পরে দীর্ঘ সময় কাঁচা চামড়া পড়ে থেকে মাছির খোরাক যোগাবে না।

৬. কুরবানির পর মাংস কাটা, ধরা এবং কুরবানি দেয়ার জায়গা পরিষ্কারের পর পরনের কাপড় ধুয়ে ফেলুন এবং গোসল করে নিন।