• সোমবার   ০২ আগস্ট ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
‘বঙ্গবন্ধু হত্যায় ষড়যন্ত্রকারী কারা, ঠিকই আবিষ্কার হবে’ ‘বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পৃষ্ঠপোষকতায় এগিয়ে খালেদা জিয়া’ দেশের নাম বদলে দিতে চেয়েছিল পঁচাত্তরের খুনি চক্র: প্রধানমন্ত্রী এক সময় নিজেই রক্তদান করতাম: প্রধানমন্ত্রী হত্যার বিচার করেছি, ষড়যন্ত্রের পেছনে কারা এখনও আবিষ্কার হয়নি একনেক বৈঠক শুরু, অনুমোদন হতে পারে ১০ প্রকল্প করোনা টেস্টে গ্রামীণ জনগণের ভীতি নিরসনে কাজ করতে হবে মানুষকে ব্যাপকভাবে ভ্যাকসিন দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদন হবে দেশেই: শেখ হাসিনা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন আজ করোনা মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীসহ সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক সুশৃঙ্খল সেনাবাহিনী গণতন্ত্র সুসংহত করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ নভেম্বরে এসএসসি, ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী নিম্নআয়ের মানুষের জন্য ৩২০০ কোটি টাকার প্রণোদনা ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট মানতে হবে যেসব বিধিনিষেধ কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল করে প্রজ্ঞাপন জারি টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বললেন মাহমুদউল্লাহ দারিদ্র্যের সাথে জনসংখ্যা বৃদ্ধির সম্পর্ক রয়েছে: রাষ্ট্রপতি

ড্রোনে বন-পাহাড় চষে বেড়ান ইউএনও

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২০ মে ২০২১  

বনাঞ্চল উজাড় ও পাহাড়ের পাথর উত্তোলন বন্ধে তৎপর প্রশাসন। একসময় দুর্গম এলাকায় অভিযান ছিল প্রায় দুঃসাধ্য। কিন্তু প্রযুক্তির ছোঁয়ায় তা এখন সাধ্যে পরিণত হয়েছে। তেমনই একটি অঞ্চল কক্সবাজারের রামু। ৩৯১ দশমিক ৭০ বর্গ কিলোমিটারের এ উপজেলার ১৮৫ দশমিক ৭৬ বর্গ কিলোমিটার সংরক্ষিত বন ও পার্বত্য অঞ্চল।

প্রায় ২শ’ বর্গ কিলোমিটারের বন ও পার্বত্য অঞ্চলটিতে এমনও অনেক এলাকা রয়েছে যেখানে অভিযান চালিয়ে অপরাধী শনাক্ত করা ছিল বেশ কঠিন। কিন্তু প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে সেই কঠিন কাজটিই সহজ করে দেখিয়েছেন রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রণয় চাকমা। গত কয়েকমাসে ড্রোনের সাহায্যে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করেছেন বন থেকে অবৈধভাবে কেটে নেয়া কাঠ, পাহাড় থেকে উত্তোলন করা পাথর ও জব্দ করেছেন পরিবহনে ব্যবহৃত যান।

ইউএনও অফিস জানায়, গত বছরের নভেম্বরে শুরু হয় ড্রোনের ব্যবহার। এর পর থেকে ড্রোনের সাহায্যে প্রায় ২০টি অভিযান পরিচালিত হয়েছে। অভিযানে এক হাজার ৯২০ ঘনফুট পাথর, ১০৩ সিএফএফ কাঠ ও পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ১৮টি ট্রাক জব্দ করা হয়েছে।    

এদিকে, অপরাধীদের সহজে চিহ্নিত করতে প্রযুক্তির ব্যবহারকে বেছে নেয়ার কথা জানিয়েছেন ইউএনও প্রণয় চাকমা।

তিনি বলেন, এমন কিছু এলাকা রয়েছে যেখানে পৌঁছানোর আগেই অপরাধীরা খবর পেয়ে পালিয়ে যায়। সেক্ষেত্রে ঘটনাস্থলে শারীরিকভাবে পৌঁছানোর আগে ড্রোন দিয়ে অঞ্চল পর্যবেক্ষণ করে অপরাধীদের শনাক্ত করা সহজ। ড্রোনের সাহায্যে প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলো যেকোনো জায়গা থেকে সরাসরি পর্যবেক্ষণ সম্ভব।

 

ড্রোনে দেখা রামু

ড্রোনে দেখা রামু

ইউএনও আরো বলেন, এ অঞ্চলে অবৈধ কার্যকলাপের সঙ্গে জড়িত ছিল একটি সিন্ডিকেট। বেশিরভাগ সময় তারা রাতের শেষদিকে কাজ করতো। আমাদের তথ্যদাতাদের তারা ভয়ভীতি দেখাতো কিংবা অর্থিক প্রলোভন দেখাতো। ফলে তথ্যপ্রাপ্তি আমাদের জন্য অনেকটা কঠিন হয়ে পড়েছিল। কিন্তু ড্রোন ব্যবহারের ফলে সেই পরিস্থিতি বদলেছে। 
   
ইউএনওর এমন উদ্যোগের প্রশংসা করে জুড়িরানালা ফরেস্ট রেঞ্জ অফিসার সুলতান মাহমুদ টিটু বলেন, গাছ কাটা ও পাথর উত্তোলনের পেছনে অনেক প্রভাবশালীদের হাত ছিল। তাদের ভয়ে স্থানীয়রাও তথ্য দিতে চান না। তবে এসব অবৈধ কার্যক্রম বন্ধে আমরা সবধরনের কৌশল অবলম্বন করে যাচ্ছি। ড্রোনের সাহায্যে ইউএনওর অপরাধী শনাক্তের ব্যাপারটি বেশ চমৎকার। সম্প্রতিকালে এর সুফলও মিলেছে। ভবিষ্যতেও মিলবে বলে আশাকরি।

রামু উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন, অবৈধভাবে কাঠ পাচারকারী ও পাথর উত্তোলনকারীদের ব্যাপারে জিরো টলারেন্সে সরকার। এরই পরিপ্রেক্ষিতে নিয়মিত অভিযান অব্যাহত রেখেছে উপজেলা প্রশাসন। সম্প্রতিকালে ড্রোনের সাহায্যে অপরাধী শনাক্তের কাজ চলছে। যারা ধরা পড়ছেন তাদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। এক্ষেত্রে স্থানীয়দের সহযোগিতাও প্রয়োজন।

বরগুনার আলো