• সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৯

  • || ০৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
জাতির পিতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা, মোনাজাত পদ্মা সেতুতে সন্তানদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সেলফি ‘পদ্মা সেতু ও রপ্তানি আয় জাতির সক্ষমতা প্রমাণ করছে’ টোল দিয়ে পদ্মা সেতুতে উঠলেন প্রধানমন্ত্রী, গাড়ি থামিয়ে উপভোগ করলেন সৌন্দর্য পদ্মা সেতু নির্মাণের সব কৃতিত্ব জনগণের: প্রধানমন্ত্রী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্তরিকতায় দেশকে এগিয়ে নিতে পেরেছি পারিবারিক আদালত আইনের খসড়া অনুমোদন ঈদের আগে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলছে না ইশতেহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভোলেনি সরকার: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুতে নাশকতার চেষ্টা: আটক ১ সঞ্চয় বাড়ানোর পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা হচ্ছে নতুন মুদ্রানীতি সব ধরনের অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার বাজেট পাস হচ্ছে আজ নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক সায়মা ওয়াজেদের মমত্ববোধ রেল ক্রসিংয়ে ওভারপাস করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়কে সেতু-উড়াল সড়ক নির্মাণের নির্দেশ ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী তিন বাহিনীর সমন্বয়ে নিশ্চিত হবে পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা

বরগুনায় ভয়াবহ আগুন, পুড়ল ১৫০ দোকান

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১৮ মে ২০২২  

বরগুনা শহরের পৌর সুপার মার্কেটে ভয়াবহ আগুনে ১৫০টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, রাত ১১টার দিকে মার্কেটের কাপড়ের ও জালের দোকান থেকে আগুন লাগে। মুহূর্তেই আগুন আশপাশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ছড়িয়ে পড়ে। এতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই পুড়ে যায় ১৫০টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান।

পৌর মার্কেটের ব্যবসায়ী আব্দুস মান্নান বলেন, কিছু বুঝে ওঠার আগেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে আশপাশে। আমার ইলেকট্রনিকের দোকানটি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, এ মার্কেটে তিন শতাধিক মোবাইল, ইলেকট্রনিক, জাল, কসমেটিকস, পোশাক, হোটেল, রেস্টুরেন্টে, কামারশালা, সেলুন, চায়ের দোকান ও ওষুধের দোকানসহ বেশ কয়েকটি বসতঘর রয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার আগেই অন্তত শতাধিক দোকান পুড়েছে।

পৌর মার্কেটের কাপড়ের বিক্রেতা সাইদী ও নাঈম বলেন, আমাদের দোকানে ১০ লাখ টাকার কাপড় ছিল। সব পুড়ে গেছে।

বরগুনা পৌরসভার মেয়র কামরুল আহসান মহারাজ বলেন, ফায়ার সার্ভিসের গাফিলতির কারণে অন্তত তিন শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে পাঁচ শতাধিক ব্যবসায়ী ও বেশ কয়েকটি বসতঘর পুড়েছে। ব্যবসায়ীদের ন্যূনতম ৬০ থেকে ৭০ কোটি টাকার ওপরে ক্ষতি হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক (বরগুনা ও পটুয়াখালী) মো. জাকির হোসেন বলেন, বরগুনা, বেতাগী, আমতলী ও পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের আটটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। প্রায় তিন ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

তিনি বলেন, আগুনের উৎস খুঁজে বের করতে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। এখন পর্যন্ত কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা সঠিকভাবে নিরূপণ করা সম্ভব হয়নি।

বরগুনার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহমেদ বলেন, পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই এলাকার নিরাপত্তা রক্ষা ও আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসকে সহযোগিতা করে। আগুন নেভাতে গিয়ে ১৫ জন ভলান্টিয়ারসহ স্থানীয় লোকজন আহত হন। তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বরগুনার আলো