• শুক্রবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৯

  • || ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আওয়ামী লীগ কারও পকেটের সংগঠন নয়: প্রধানমন্ত্রী তারেককে এনে সাজা বাস্তবায়ন করা হবে: শেখ হাসিনা নয়াপল্টনে লাশ ফেলার দুরভিসন্ধি কার্যকর করেছে বিএনপি: কাদের ক্রিকেট দলের জয়ের ধারা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে: রাষ্ট্রপতি ২০২৪-এর জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নির্বাচন, ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী মিরাজের অবিশ্বাস্য সেঞ্চুরি, বাংলাদেশের ২৭১ সমুদ্রকে নিরাপদ রাখতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী চলমান সকল যুদ্ধ থামান: বিশ্ব নেতাদের প্রতি শেখ হাসিনা বৈশ্বিক বাণিজ্যের স্বার্থে সমুদ্রকে নিরাপদ রাখা আবশ্যক ছাত্রলীগের প্রার্থীদের জীবনবৃত্তান্ত যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সমুদ্র সৈকতে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে বিকেলে জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী আজ দ্বিতীয় ওয়ানডে, ভারতের বিপক্ষে আরেকটি সিরিজ জয়ের হাতছানি জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে আ.লীগকে ভোট দেয়: শেখ হাসিনা ব্যাংকে টাকা আছে, সমস্যা নাই: প্রধানমন্ত্রী জনগণ স্বতস্ফুর্তভাবে আ.লীগকে ভোট দেয়: শেখ হাসিনা ছাত্রলীগকে গুজবের জবাব দেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ৩০০ কোটি মানুষের বাজার ধরতে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান কৃষি জমি নষ্ট করে শিল্পকারখানা নয়: প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে অঙ্গীকারবদ্ধ: শেখ হাসিনা

পুরো বাংলাদেশ পূজার আনন্দে বিভোর: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৪ অক্টোবর ২০২২  

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ, এটা হবে। সবাই মিলে বাংলাদেশ হবে। আজ সারা বাংলাদেশে আমরা এই দৃশ্যটি দেখছি। পুরো বাংলাদেশে আজ সবাই পূজার আনন্দে বিভোর। এখানে কে মুসলমান, কে বৌদ্ধ, কে খ্রিস্টান তার প্রশ্ন আসে না। প্রশ্ন আসে, হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমরা সবাই তার সঙ্গে ভাগিদার হচ্ছি।

সোমবার (৩ অক্টোবর) কাওরান বাজারে এটিএন নিউজ কার্যালয়ের সামনে তৈরি করা হয়েছে অস্থায়ী মণ্ডপ পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। মিডিয়া পল্লিতেও পূজা হচ্ছে। মুন্নী সাহার নেতৃত্বে সবাই এক সঙ্গে পূজার ব্যবস্থা করেন। অনেকেই এ বছর সন্দেহ করেছিল, গত বছরের কুমিল্লায় যে ঘটনা ঘটেছিলো... এগুলো আমি মনে করি আকষ্মিক অরাজকতা সৃষ্টি করার জন্য ঘটনাটি ঘটিয়েছিল।  আমরা যখন ক্ষমতায় আসি, সারা বাংলাদেশে ১৫ হাজারের মতো পূজামণ্ডপ হতো।  আজ ৩২ হাজার ২০০টিরও বেশি পূজামণ্ডপ হয়েছে। প্রতি বছর সংখ্যা বাড়ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সব সময় বলেন ধর্ম যার যার উৎসব সবার। এটা বিশ্বাস করি বলেই আজ একত্রিত হয়েছি আমরা। একটা দুর্বার অগ্রগতি আপনার দেখছেন।   

অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, সবাই মিলে পরিবার সবাই মিলে দেশ। সবাই মিলে বাংলাদেশ। সব মানুষ মিলে আমরা গোটা এক পরিবার। বাংলাদেশে বিভেদ বলে কিছুই নেই, থাকবেও না। অতীতে আমরা একত্রে যেভাবে বসবাস করেছি, হাজার বছর এভাবেই বসবাস করবো।

এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান বলেন, ছোট বেলায় আমরা দিনাজপুরে থাকতাম, আমার বাসার চারপাশে ছিল হিন্দু পরিবার। মাঝখানে আমরা একটা মুসলমান পরিবার ছিলাম। ছোট বেলায় দেখতাম, পূজা হচ্ছে, উৎসব হচ্ছে। আমরা সবাই যেতাম। মনে করতাম আমাদেরই একটা উৎসব হচ্ছে। সে রকম হিন্দু পরিবাররাও আসতো ঈদের সময়। সে সময় কোনোদিন দেখিনি, এ রকম পুলিশ ঘেরাও করে পূজা হতে, পুলিশ দিয়ে পূজামণ্ডপ রক্ষা করতে।আমি মনে করি এটার বড় একটি কারণ ফেসবুক বা অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। আমি সোশাল মিডিয়াকেই দায়ী করবো।  আমাদের সময় ছোট বেলার সময় সোশাল মিডিয়াও ছিল না। এ রকম গ্যাঞ্জামও হতো না। কোনোদিন দেখিনি পূজার ঠাকুর ভাঙতে। বরং হিন্দুদের পূজায় আমাদেরও উৎসব লেগে যেতো।

অনুষ্ঠানে গাজীপুর সিটি করপোরেশন বরখাস্ত মেয়র ও আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কৃত মো. জাহাঙ্গীর আলম, এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী সম্পাদক মুন্নী সাহা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বরগুনার আলো