• বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ড. ইউনূস কর ফাঁকি দিয়েছেন, তা আদালতে প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী ‘শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না’ অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার পথ নিয়ে আলোচনা করেছি সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে বহুমাত্রিক করেছে: প্রধানমন্ত্রী অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

ফেসবুকে ভাইরাল ভিসা নিষেধাজ্ঞার ভুয়া তালিকা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞায় থাকা ব্যক্তিদের বিভ্রান্তিকর বিভিন্ন তালিকা ছড়িয়ে পড়েছে। সাবেক ও বর্তমান আমলা, নির্বাচন কমিশনার, বিচারপতি, সরকার, বিরোধী দল, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার মানুষের নাম রয়েছে এসব তালিকায়। তবে এসব তালিকার নির্ভরযোগ্য কোনো উৎসের খোঁজ মেলেনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের তথ্যের সত্যতা যাচাইকারী প্রতিষ্ঠানগুলো এসব তালিকাকে ভুয়া চিহ্নিত করেছে। যুক্তরাষ্ট্রও বলছে, নীতিমালা অনুসারে ভিসা নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা ব্যক্তিদের তালিকা তারা প্রকাশ করে না।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভুয়া তথ্য যাচাইকারী প্রতিষ্ঠান বুম বিডি মঙ্গলবার তাদের সাইটে প্রকাশিত এক রিপোর্টে জানায়, গত ২৩ সেপ্টেম্বর ‘ভয়েস বাংলা’ নামে একটি পেজ থেকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১০ জন বিরোধীদলীয় নেতার নাম উল্লেখ করে দাবি করা হয়, তারা যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছেন।

একই দিন ‘লন্ডন বাংলা চ্যানেল’ নামে একটি পেজ থেকে পুলিশের সাবেক ও বর্তমান প্রায় ৯০ জন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার নাম দিয়ে বলা হয়, তাদের নাম ভিসা নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছে।

এ ছাড়া সাবেক ও বর্তমান সরকারি কর্মকর্তা, নির্বাচন কমিশনার, বিচারপতি, সেনা কর্মকর্তা, পুলিশ, রাজনীতিকসহ ৩৫ জনের নামের একটি তালিকাও ফেসবুকে ঘুরতে দেখা গেছে। এ ছাড়া অর্ধশতাধিক সাংবাদিকের নাম দিয়েও একটি তালিকা শেয়ার করতে দেখা গেছে বিভিন্ন ব্যক্তি ও পেজকে।

এসব তালিকার বিষয়ে বুম বিড, ফ্যাক্ট ওয়াচসহ ভুয়া তথ্য যাচাইকারী প্রতিষ্ঠানগুলো জানিয়েছে, বাংলাদেশে যাদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা শুরু হয়েছে তারা নিজে থেকে যদি নিশ্চিত না করেন, তাহলে বাইরের কারও পক্ষে এ সম্পর্কে জানা সম্ভব নয়। কিন্তু ভাইরাল পোস্টগুলোতে যাদের কথা উল্লেখ করা হয়েছে তাদের সবার পক্ষ থেকে এখনও এ-সংক্রান্ত কোনো বিবৃতি পাওয়া যায়নি। সংগত কারণে ভাইরাল হওয়া পোস্টগুলো মিথ্যা।

গণ্যমাধ্যমে প্রকাশিত যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ডোনাল্ড লু এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘বাংলাদেশের ওপর আরোপ করা যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতির অধীনে যারা নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন, তাদের নাম প্রকাশ করা হবে না। ব্যক্তিগত ভিসা বাতিলসহ ভিসার রেকর্ড মার্কিন আইনের অধীনে গোপন রাখা হয়।’

এ বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘যদি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিটিআরসিকে কোনো বিষয়ে অভিযোগ করে তাহলেই সেই লিংক, পেজ বা কনটেন্ট সরিয়ে ফেলতে সংশ্লিষ্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে অনুরোধ করা হয়।’

পুলিশের সিটিটিসি সাইবার ইউনিটের এডিসি নাজমুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘কোনো ব্যক্তি অভিযোগ না করলে এমন বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিজে থেকে কোনো তদন্ত করে না। অভিযোগ পেলে তা যাচাই করে বিটিআরসিকে জানানোসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বরগুনার আলো