• বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ড. ইউনূস কর ফাঁকি দিয়েছেন, তা আদালতে প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী ‘শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না’ অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার পথ নিয়ে আলোচনা করেছি সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে বহুমাত্রিক করেছে: প্রধানমন্ত্রী অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

বন্ধুত্ব করে তরুণীরা একান্তে সময় কাটাতে বাসায় ডাকেন, তারপর...

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২৩  

ভুয়া পুলিশ আর সাংবাদিক মিলে তৈরি করেছেন একটি প্রতারক চক্র। এ চক্রে রয়েছেন উঠতি বয়সী তরুণীও। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এসব তরুণী বন্ধুত্ব করেন ধনাঢ্য ব্যক্তিদের সঙ্গে। একান্তে সময় কাটানোর জন্য ডেকে আনেন বাসায়। পরে ফাঁদে ফেলে হাতিয়ে নেন লাখ লাখ টাকা। এমন এক চক্রের আট সদস্যকে গ্রেফতারও করেছে ডিবি পুলিশ। মঙ্গলবার (২২ আগস্ট) এক সংবাদ সম্মেলনে তথ্যটি জানায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

পুলিশ জানায়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ চক্রের তরুণী সদস্যরা বন্ধুত্ব করেন ষাটোর্ধ্ব ধনাঢ্যদের সঙ্গে। বন্ধুত্বের একপর্যায়ে একান্তে সময় কাটাতে ডেকে আনেন বাসায়। বাসায় আসলেই উপস্থিত হয় ভুয়া পুলিশ। এর কিছুক্ষণ পর আসে ভুয়া সাংবাদিক। পুলিশ ভয় দেখায় মামলার, আর সাংবাদিক খবর প্রচারের। পরে বিষয়টি দফারফা হয় মোটা অংকের বিনিময়ে।
 
এমন একটি চক্রের সদস্য সংখ্যা দশ জনের বেশি। ভুয়া পুলিশ ও সাংবাদিক ছাড়াও এতে আছেন একাধিক তরুণী। মূলত এসব তরুণীকে দিয়েই তৈরি করা হয় ফাঁদ। আর সে ফাঁদে পড়েই নিঃস্ব হন অনেক ধনাঢ্য। তবে লোকলজ্জার ভয়ে অনেক ভুক্তভোগী এ নিয়ে রাজি হন না মুখ খুলতে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার খোন্দকার নুরুন্নবী জানান, যখন কেউ একান্তে সময় কাটাতে তরুণীদের বাসায় আসেন, তখন হঠাৎ ভুয়া পুলিশ ও সাংবাদিক ঢুকে ভিডিও করতে থাকেন। এভাবে ফাঁদে ফেলা হয় ভিকটিমকে। এরপর তারা এ ভিডিওর ভয় দেখিয়ে টাকা দাবি করেন; আর ভুক্তভোগীও লোকলজ্জার ভয়ে টাকা দিতে বাধ্য হন।

তিনি জানান, এ সময় প্রতারকরা একটি দলিলও করে যে, এ বিষয়ে যদি কোনো পুলিশ বা ইনভেস্টিগেটিভ সংস্থাকে জানাও তাহলে তোমার আরও ক্ষতি করে দেব। স্বাভাবিকভাবে ভুক্তভোগী যখন ফাঁদে পড়ে যায়, তখন সে সব কিছুতেই রাজি হয়ে যায়। এভাবেই তখন নিঃস্ব হন ভুক্তভোগী।

এদিকে, গোয়েন্দা পুলিশের হাতে আটকের পরও প্রতারক চক্রের সদস্য বিশেষ করে তরুণীদের মধ্যে কোনো অনুশোচনা থাকে না। উপরের ছবিতে দেখানো রিমা (ডানে) ও শাহনাজ ছাড়াও ছয়জনকে রাজধানীসহ আশপাশের এলাকা থেকে ডিবির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ গ্রেফতার করেছে।

তাদের ফাঁদে পা দিয়ে লাখ লাখ টাকা খুইয়েছেন অনেকে। এ ধরনের আরও কিছু চক্রের সন্ধান পেয়েছেন গোয়েন্দারা। তাদেরকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান ডিবি পুলিশের যুগ্ম কমিশনার খোন্দকার নুরুন্নবী।

বরগুনার আলো