• শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৮

  • || ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
প্রশিক্ষিত সামরিক বাহিনী গঠনে বিভিন্ন পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছি বাংলাদেশ আর পিছিয়ে যাবেনা, এগিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সদাপ্রস্তুত পার্বত্য শান্তিচুক্তির ফলে দীর্ঘদিনের সংঘাতের অবসান ঘটে পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিশ্বের ইতিহাসে বিরল ঘটনা: প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়ীদের দেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ২৪ বছরে পার্বত্য শান্তি চুক্তি করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না: প্রধানমন্ত্রী গাড়ি ভাঙচুর-আগুন দিলেই ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন ও জয়িতা টাওয়ারের ভিত্তি স্থাপন সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে ঢাবি: প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘ বাংলাদেশকে অব্যাহত সমর্থন দেবে রাজস্ব বোর্ডকে সেবাধর্মী, জনবান্ধব ও করদাতাবান্ধব করেছে সরকার ষড়যন্ত্র থাকবে, তবু দেশ এগিয়ে যাবে: প্রধানমন্ত্রী বৈদেশিক বিনিয়োগে বাংলাদেশের গুরুত্ব দিন দিন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী অর্থনৈতিক অঞ্চলসমূহে ২৭ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ প্রস্তাব পেয়েছি বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিজনেস সামিট বিনিয়োগ বাজার তৈরি করবে: প্রধানমন্ত্রী ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চারিত করে’

দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ দাম বাড়ল রডের

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০২১  

অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে রডের (মাইল্ড স্টিল) দাম। মাত্র দুই সপ্তাহের ব্যবধানে রডের দাম বেড়েছে ৭ হাজার টাকা। গত এক বছরে রডের দাম ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। এই প্রথম দেশের বাজারে রডের দাম এতো বাড়ল।

রডের এমন দাম বাড়ার কারণ হিসেবে, দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক বাজারের রড তৈরির কাঁচামাল স্ক্র্যাপ এবং বিলেটের দাম বৃদ্ধি পাওয়াকে দায়ী করছে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।

এ ব্যাপারে কেএসআরএম গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার (সেলস) মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, রডের দাম বৃদ্ধির প্রধান কারণ আন্তর্জাতিক বাজারে স্ক্র্যাপ ও স্ক্র্যাপ জাহাজের বুকিং দর বৃদ্ধি। ২০২০ সালে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আর্ন্তজাতিক বাজারে প্রতি টন স্ক্র্যাপের দাম ছিল ২৬৫-২৭০ ডলার। কিন্তু বর্তমানে স্ক্র্যাপের বুকিং দর ৬০০ ডলার ছাড়িয়ে গেছে।

যদিও ব্যবসায়ীরা বলছেন, স্ক্র্যাপের দাম দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেলেও উৎপাদনের সঙ্গে সমন্বয় করতে রডের দাম সেই তুলনায় বাড়ানো হয়নি। বর্তমানে বাজারে তিন ধরনের রড পাওয়া যাচ্ছে- অত্যাধুনিক প্রযুক্তি বা অটো কারখানাগুলোতে তৈরি ৭৫-গ্রেড (৫০০ টিএমটি), সেমি-অটো কারখানাগুলোতে তৈরি ৬০-গ্রেড (৫০০ ওয়াট) এবং সাধারণ বা ৪০-গ্রেডের রড।

এর মধ্যে প্রতি টন ৭৫-গ্রেডের রড বিক্রি হচ্ছে ৭৪ হাজার থেকে ৭৮ হাজার টাকায়। মাত্র দুই সপ্তাহ পূর্বেই এই গ্রেডের প্রতি টন রডের দাম ছিল ৬৭ হাজার থেকে ৭৩ হাজার টাকা।

এ ছাড়া রডের পাশাপাশি অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে ইস্পাত তৈরির কাঁচামাল বিলেট, প্লেট ও স্ক্র্যাপের দামও। বর্তমানে বাজারে প্রতি টন স্ক্র্যাপ ৫৫ হাজার টাকা, প্লেট ৬০ হাজার টাকা এবং বিলেট ৬৬ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দুই সপ্তাহে আগে স্ক্র্যাপ ৫০ হাজার টাকা, প্লেট ৫৬ হাজার টাকা এবং বিলেট ৬০-৬১ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে।

বরগুনার আলো