• মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৯ ১৪৩১

  • || ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী দেশীয় খেলাকে সমান সুযোগ দিন: প্রধানমন্ত্রী খেলাধুলার মধ্য দিয়ে আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে: রাষ্ট্রপতি শারীরিক ও মানসিক বিকাশে খেলাধুলা গুরুত্বপূর্ণ: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই: প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে পশুপালন ও মাংস প্রক্রিয়াকরণের তাগিদ জাতির পিতা বেঁচে থাকলে বহু আগেই বাংলাদেশ আরও উন্নত হতো মধ্যপ্রাচ্যের অস্থিরতার প্রতি নজর রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রী আজ প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করবেন মন্ত্রী-এমপিদের প্রভাব না খাটানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর দলের নেতাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানায় শেখ হাসিনা মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বর্তমান প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস জানতে পারবে মুজিবনগর দিবস বাঙালির ইতিহাসে অবিস্মরণীয় দিন: প্রধানমন্ত্রী ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ নতুন বছর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে : প্রধানমন্ত্রী আ.লীগ ক্ষমতায় আসে জনগণকে দিতে, আর বিএনপি আসে নিতে: প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা রাষ্ট্রপতির

সংবাদ সম্মেলনকে ‘সার্কাস’ মনে করেন জনি ডেপ!

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১৮ মে ২০২৩  

উদ্বোধনী দিন থেকে এবারের কান চলচ্চিত্র উৎসবের স্পটলাইট অনেকটা একতরফাভাবে পড়ে আছে হলিউড সুপারস্টার জনি ডেপের মুখ বরাবর! গত ১৬ মে সন্ধ্যায় লালগালিচা হয়ে রাতে নিজের অভিনীত নতুন ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী শেষে বুধবার (১৭ মে) স্থানীয় সময় দুপুর ১২টার (বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টা) সংবাদ সম্মেলনে এসে, চলনে-বলনে সেটাই যেন বারবার প্রমাণ করে গেলেন তিনি।

কান উৎসবের ৭৬তম আসরের প্রথম দুই দিন যেন ‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান’ তারকা জনি ডেপকে ঘিরেই সাজানো ছিল।

৫৯ বছর বয়সী এই আমেরিকান অভিনেতার কথায় যেমন রসবোধ আছে, তেমনি পাওয়া গেলো সিরিয়াস প্রতিক্রিয়া। এভাবেও বলা যায়, জনি ডেপ মূলত পর্দা ও বাস্তবে বিশ্ব-সেলুলয়েডের জীবন্ত এক স্যাটায়ার বক্স! ফলে কানসৈকতে সংবাদ সম্মেলনে এসেও ‌সাংবাদিকদের নিয়ে রসিকতা করতে ছাড়লেন না তিনি।

‘জান দ্যু ব্যারি’ ছবির সংবাদ সম্মেলনে জনি ডেপ ও কলাকুশলীরা (ছবি: বাংলা ট্রিবিউন)

জনি ডেপ অভিনীত উৎসবের উদ্বোধনী ছবি ‘জান দ্যু ব্যারি’র নির্মাতা-শিল্পীদের নিয়ে আয়োজন করা হয় সংবাদ সম্মেলন। প্রাক্তন স্ত্রী অ্যাম্বার হার্ডের বিপক্ষে মানহানির মামলায় আইনি লড়াইয়ে জেতার পর এটাই তার প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি। এভাবেও বলা যায়, হলিউড থেকে দূরে সরে গিয়ে লম্বা বিরতির পর প্রধান চরিত্রে ফের পর্দায় ফিরেছেন তিনি। ফরাসি নির্মাতা-সহশিল্পীদের নিয়ে তার প্রত্যাবর্তন হলো।

সব মিলিয়ে সংবাদ সম্মেলনটি ছিল কানে হাজির সাংবাদিকদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও আকর্ষণীয়। যদিও জনি ডেপ এসেই বিষয়টিকে আখ্যা দিলেন ‘সার্কাস’! তার কথায়, ‘এটি হলো কান উৎসবের সার্কাসের অংশ!’

সহজেই অনুমেয়, অ্যাম্বার হার্ডের সঙ্গে মামলার রেশ ধরে এবং হলিউড থেকে কাজ হারানো বিষয়ক গুঞ্জনের আগুনে গণমাধ্যমের ‘ঘি’ ঢালার বিষয়টি নিয়ে জনি ডেপ তেঁতে আছেন এখনও! যদিও তার ভাবনা থেকে রসবোধ কমেনি একটুও।

‘জান দ্যু ব্যারি’র দৃশ্যে মাইওয়েন ও জনি ডেপ

এক প্রশ্নের জবাবে বললেন, ‘সংবাদ সম্মেলনের বিষয়টি সার্কাস হলেও এটুকু তো ঠিক যে, আমরা একটা সিনেমা বানিয়েছি বলেই অভিজ্ঞতা শেয়ারের জন্য এখানে এসেছি। তাই কেউ ভাববেন না, আমরা পণ্য বিক্রির জন্য এসেছি।’

সংবাদ সম্মেলনে ঢুকেই কেন এমন সতর্কবার্তা দিলেন সাংবাদিকদের, জনি ডেপ ব্যাখ্যা করলেন সেটিও। বেশ নিচু স্বরে ধীরলয়ে বললেন, ‘গত পাঁচ-ছয় বছরে আপনারা সংবাদমাধ্যমে আমার সম্পর্কে যা যা পড়েছেন কিংবা লিখেছেন, সেসবের বেশিরভাগই ছিল ভয়ঙ্কর সব কল্পকাহিনি।’

এদিন সংবাদ সম্মেলনে জনি ডেপ একা আসেননি। বরং নির্দিষ্ট সময়ের ৪২ মিনিট আগে পাঠিয়েছেন ‘জান দ্যু ব্যারি’র সদস্যদের। তার চেয়ারটি অনেকক্ষণ ফাঁকাই পড়ে ছিল। একটা সময় উপস্থিত সাংবাদিকরা ধরেই নিয়েছিলেন, তিনি সম্ভবত গণমাধ্যমকে এড়িয়ে গেলেন! এসব ভেবে যখন পুরো সংবাদ সম্মেলন পানসে হয়ে উঠলো, ঠিক তখনই হাজির হলেন জনি ডেপ। উপস্থিত সাংবাদিকদের একের পর এক প্রশ্নের জবাব দিলেন ঠাণ্ডা মাথায়। তখন তার দুই পাশে ছিলেন ফরাসি সহশিল্পীরা। ছবিটি পরিচালনা করেছেন ফরাসি নারী নির্মাতা মাইওয়েন ল্যু বেস্কো। এতে তিনি অভিনয়ও করেছেন।

কান উৎসবে জনি ডেপ ও মাইওয়েন

সংবাদ সম্মেলনে নির্মাতা মাইওয়েনের কাছে প্রশ্ন ছিল, একজন আমেরিকান অভিনেতাকে কেন ডেকে এনে ফরাসি রাজার চরিত্রে অভিনয় করাতে হলো! তার জবাব, ‘প্রথমে অনেক ফরাসি অভিনেতার সঙ্গে চরিত্রটি নিয়ে আলাপ করেছি। কিন্তু আমি যা চাইছিলাম, সেটি মেলাতে পারছিলাম না কিছুতেই। এরপর চিত্রনাট্য নিয়ে জনি ডেপের সঙ্গে সাক্ষাতের পর আমার মনে হলো, এই চরিত্রে শুধু তিনিই জুতসই হতে পারেন। এরপর আলাপ করে এবং শুটিংয়ে গিয়ে সত্যিই তার ভালোবাসায় ডুবে গেছি। তিনি অসাধারণ একজন অভিনেতা।’

নির্মাতা ও সহশিল্পীদের এমন আলাপের ২৭ মিনিটের মাথায় সংবাদ সম্মেলনে ঢোকেন জনি ডেপ। যেন প্রাণ ফিরে আসে পুরো হলরুমে। শুরু হয় সাংবাদিকদের প্রশ্ন।

হলিউডকে বিদায় জানিয়েছেন কিংবা বয়কট করেছেন জনি ডেপ, এমন চর্চা বেশ ক’বছর ধরে চলছে। কারণ শেষ তিন বছরে হলিউডের একটি কাজও করেননি তিনি। সেই প্রশ্নই এবার তাকে সরাসরি পেয়ে উঠে এলো। জবাবে জনি ডেপ বললেন, ‘আপনারা কেউ বলছেন, আমি অভিনয় থেকে রিজাইন দিয়েছি। কেউ বলছেন, হলিউডকে বয়কট করেছি। বিষয়টি আসলে এমন নয়। এগুলো বাতাসে ওড়া খবর। যার কোনও সত্যতা বা বাস্তবতা নেই। হলিউডকে আমার বয়কটের প্রশ্নই আসে না। কারণ আমি হলিউড নিয়ে ভাবিই না। আমি যা করেছি হলিউডে, এর বেশি প্রয়োজনও নেই।’

প্রাক্তন স্ত্রীর বিপক্ষে আইনি লড়াইয়ে জেতার পর বড় পর্দায় জনি ডেপের ফেরাকে ‘কামব্যাক’ হিসেবে অভিহিত করে আসছে গোটা বিশ্বের গণমাধ্যম। এই শব্দ নিয়ে জনি জানালেন তীর্যক মন্তব্য, ‘এভাবে যদি আপনারা হিসাব করেন, তাহলে এ পর্যন্ত অন্তত ১৭ বার কামব্যাক করেছি!’

সেইসঙ্গে যোগ করেন, ‘আমি খুবই বিস্মিত হই, যখন এই কামব্যাক শব্দটি শুনি। কারণ, আমি তো কোথাও চলে যাইনি। আগামীতেও যাবো না। সবসময় সবার চারপাশেই ছিলাম, এখনও আছি।’

বলা দরকার, সর্বশেষ ২০২০ সালে ‘মিনামাটা’ সিনেমায় দেখা গেছে জনি ডেপকে। তিন বছর পর বড় পর্দায় প্রত্যাবর্তন করলেন তিনি। ফরাসি ভাষায় নির্মিত ‘জান দ্যু ব্যারি’ ১৬ মে ফ্রান্সের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে। এতে রাজা পঞ্চদশ লুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। 

বরগুনার আলো