• শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
রূপপুর মেটাবে বিদ্যুতের চাহিদা, দেবে লাভও দ্রব্যমূল্য নিয়ে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ দফা প্রস্তাব পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিবেশবান্ধব: প্রধানমন্ত্রী খালেদাকে পদ্মায় ফেলতে আর ইউনূসকে চুবিয়ে তুলতে বললেন শেখ হাসিনা কক্সবাজার হবে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের রিফুয়েলিং পয়েন্ট কক্সবাজারে যত্রতত্র স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে কউক’র নতুন ভবনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর টোল নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি আওয়ামী লীগ সরকার আছে বলেই সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে- প্রধানমন্ত্রী ওপেনিংয়ে চতুর্থ সেরা জুটি গড়ে ফিরলেন জয়, তামিমের সেঞ্চুরি নিত্যপণ্যের দাম কেন চড়া, জানালেন প্রধানমন্ত্রী স্বদেশ প্রত্যাবর্তন: শেখ হাসিনা দেশের মানুষের শেষ ভরসাস্থল শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির নিরাপদ আশ্রয়স্থল শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ইতিহাসে মাইলফলক: রাষ্ট্রপতি চার দশকেরও বেশি সময় শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে আ.লীগ উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি খাদ্য সাশ্রয় করুন: প্রধানমন্ত্রী সবাই স্বাধীনভাবে সরকারের সমালোচনা করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী টাকা অপচয় করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী ‌ঢাকায় বসে সমালোচনা না করে গ্রামে ঘুরে আসুন

প্রতিবন্ধীকে কর্মসংস্থান করে দিলো পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৫ জানুয়ারি ২০২১  

শারীরিক প্রতিবন্ধী মো. কামাল হোসেন স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলা করতে পারে না, কথাও বলছে অস্পষ্ট। হাঁটাচলা করতে না পারায় পেটের দায়ে ভিক্ষাবৃত্তি করেই চলছিল তার জীবিকা।

উপজেলা কালমেঘা ইউপির কালিবাড়ি এলাকার মো. আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মো. কামাল হোসেনকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিলেন পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগ। 

মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে পাথরঘাটা পৌর শহরের লিকার পট্টিতে একটি স্টিলের বাক্স, পান, জর্দ্দা, চুন-সুপারি নগদ ১০ হাজার টাকাসহ পানের দোকান দিয়ে দেন। এমন মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন অনেকে। এ সময় দোয়া মোনাজাতের মাধ্যমে কামালের হাতের চাবি তুলে দেন পাথরঘাটা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম রিপন। মোনাজাত পরিচালনা করেন সাংবাদিক হাফেজ শফিকুল ইসলাম খোকন।

জানা যায়, কামাল হোসেন ১০ বছর আগে হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পঙ্গু হয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে কথাও বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ চিকিৎসার পরে কথা বলতে পারলেও তা অস্পষ্ট। মায়ের অবর্তমানে বৃদ্ধ বাবার সংসারে একমাত্র ভরসাই প্রতিবন্দী কামাল হোসেন ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালাতেন। পঙ্গু কামাল দৈনিক ভিক্ষা করে যা পায় তা দিয়ে মৃত ভাইয়ের রেখে যাওয়া তিন সন্তান নিয়ে সংসার চালান। তার অভাবের সংসারের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগ।

প্রতিবন্দী কামাল হোসেন বলেন, আমি জানি ভিক্ষা করা পাপ। তারপরেও পেটের দায়ে করতে হচ্ছে। পঙ্গু হয়েও পেটের দায়ে ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসারের জোগান দিতাম। যা পেতাম তা দিয়েই মোটামোটি দিন চলতো। কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছেন এজন্য আমি খুশি এবং তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ওয়ালিদ মক্কি ও পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাদাত হোসেন মধু বলেন, ছাত্রলীগ শুধু রাজনীতিই করেনা মানবতার কাজও করে থাকে। তার উদাহরণ আজকের কামালকে কর্মসংস্থান করে দেয়া।

বরগুনার আলো