• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২০ ১৪২৯

  • || ১০ রজব ১৪৪৪

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে হিসাব করে চলার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী ২০২২-২৩ অর্থবছরে ১০ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ভাষা-সাহিত্য চর্চাও ডিজিটাল করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ মানহীন শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে: রাষ্ট্রপতি মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে

প্রতিবন্ধীকে কর্মসংস্থান করে দিলো পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৫ জানুয়ারি ২০২১  

শারীরিক প্রতিবন্ধী মো. কামাল হোসেন স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলা করতে পারে না, কথাও বলছে অস্পষ্ট। হাঁটাচলা করতে না পারায় পেটের দায়ে ভিক্ষাবৃত্তি করেই চলছিল তার জীবিকা।

উপজেলা কালমেঘা ইউপির কালিবাড়ি এলাকার মো. আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মো. কামাল হোসেনকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিলেন পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগ। 

মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে পাথরঘাটা পৌর শহরের লিকার পট্টিতে একটি স্টিলের বাক্স, পান, জর্দ্দা, চুন-সুপারি নগদ ১০ হাজার টাকাসহ পানের দোকান দিয়ে দেন। এমন মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন অনেকে। এ সময় দোয়া মোনাজাতের মাধ্যমে কামালের হাতের চাবি তুলে দেন পাথরঘাটা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম রিপন। মোনাজাত পরিচালনা করেন সাংবাদিক হাফেজ শফিকুল ইসলাম খোকন।

জানা যায়, কামাল হোসেন ১০ বছর আগে হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পঙ্গু হয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে কথাও বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ চিকিৎসার পরে কথা বলতে পারলেও তা অস্পষ্ট। মায়ের অবর্তমানে বৃদ্ধ বাবার সংসারে একমাত্র ভরসাই প্রতিবন্দী কামাল হোসেন ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালাতেন। পঙ্গু কামাল দৈনিক ভিক্ষা করে যা পায় তা দিয়ে মৃত ভাইয়ের রেখে যাওয়া তিন সন্তান নিয়ে সংসার চালান। তার অভাবের সংসারের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগ।

প্রতিবন্দী কামাল হোসেন বলেন, আমি জানি ভিক্ষা করা পাপ। তারপরেও পেটের দায়ে করতে হচ্ছে। পঙ্গু হয়েও পেটের দায়ে ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসারের জোগান দিতাম। যা পেতাম তা দিয়েই মোটামোটি দিন চলতো। কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছেন এজন্য আমি খুশি এবং তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ওয়ালিদ মক্কি ও পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাদাত হোসেন মধু বলেন, ছাত্রলীগ শুধু রাজনীতিই করেনা মানবতার কাজও করে থাকে। তার উদাহরণ আজকের কামালকে কর্মসংস্থান করে দেয়া।

বরগুনার আলো