• মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ড. ইউনূস কর ফাঁকি দিয়েছেন, তা আদালতে প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী ‘শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না’ অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার পথ নিয়ে আলোচনা করেছি সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে বহুমাত্রিক করেছে: প্রধানমন্ত্রী অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

কোচিং বাণিজ্যে জড়িত নয় শিক্ষককে শোকজ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৩০ আগস্ট ২০২৩  

বরগুনার আমতলীতে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নয় শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) তাদের শোকজ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সফিউল আলম।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, কোচিং বাণিজ্য টিকিয়ে রাখতে ক্লাস্টারভিত্তিক প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা না নিয়ে আমতলী বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকরা নিজেরা প্রশ্নপত্র তৈরি করে পরীক্ষা নিয়েছেন। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয় শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে শোকজের জবাব সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অভিযুক্ত শিক্ষকরা হলেন- আমতলী বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুনীল কংস বণিক, সহকারী শিক্ষিকা নার্গিস আক্তার, নাসিমা, ফাতেমা, লাভলী, কুলসুম, নাজমা, জোহরা ও নার্গিস নিরু।

তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, গত ২৩ আগস্ট আমতলীর ১৫৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অর্ধবার্ষিক পরীক্ষা শুরু হয়। ওই পরীক্ষায় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস ক্লাস্টারভিত্তিক প্রশ্নপত্র তৈরি করে পরীক্ষা নিচ্ছিল। এতে বিপাকে পড়ে কোচিং বাণিজ্যে জড়িত আমতলী বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এবং ক্লাস্টারভিত্তিক প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা না নিয়ে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকরা তাদের তৈরি করা প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেন। মঙ্গলবার ইংরেজি পরীক্ষা চলাকালে বিষয়টি ফাঁস হয়। পরে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তদন্ত করে সত্যতা পেয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয় শিক্ষককে শোকজ করেন।

এ বিষয় বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন খাঁন বলেন, ক্লাস্টারভিত্তিক প্রশ্নপত্রেই পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। তবে কেন নয় শিক্ষককে শোকজ করা হলো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি সদুত্তর দিতে পারেননি।

বরগুনার আলো