• সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৯

  • || ০৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
জাতির পিতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা, মোনাজাত পদ্মা সেতুতে সন্তানদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সেলফি ‘পদ্মা সেতু ও রপ্তানি আয় জাতির সক্ষমতা প্রমাণ করছে’ টোল দিয়ে পদ্মা সেতুতে উঠলেন প্রধানমন্ত্রী, গাড়ি থামিয়ে উপভোগ করলেন সৌন্দর্য পদ্মা সেতু নির্মাণের সব কৃতিত্ব জনগণের: প্রধানমন্ত্রী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্তরিকতায় দেশকে এগিয়ে নিতে পেরেছি পারিবারিক আদালত আইনের খসড়া অনুমোদন ঈদের আগে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলছে না ইশতেহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভোলেনি সরকার: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুতে নাশকতার চেষ্টা: আটক ১ সঞ্চয় বাড়ানোর পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা হচ্ছে নতুন মুদ্রানীতি সব ধরনের অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার বাজেট পাস হচ্ছে আজ নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক সায়মা ওয়াজেদের মমত্ববোধ রেল ক্রসিংয়ে ওভারপাস করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়কে সেতু-উড়াল সড়ক নির্মাণের নির্দেশ ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী তিন বাহিনীর সমন্বয়ে নিশ্চিত হবে পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা

বিএনপি প্রমাণ করেছে পঁচাত্তরের হত্যাকাণ্ডের জন্য তারা দায়ী: হানিফ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৩১ মে ২০২২  

‘পঁচাত্তরের হাতিয়ার গর্জে ওঠুক আরেকবার’-এ স্লোগান দেয়ার মধ্য দিয়ে বিএনপি প্রমাণ করেছে পঁচাত্তরের জঘন্য হত্যাকাণ্ডের জন্য তারা দায়ী। এ ঘটনার জন্য বিএনপি নেতাদের বিচারের মুখোমুখি হতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

সোমবার দুপুরে নগরের দি কিং অব চিটাগাং-এ নগর যুবলীগের সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। হানিফ বলেন, ‘মানুষ বিএনপির অপপ্রচার বিশ্বাস করে না। রাজপথে সংগ্রাম করে জনতার ক্ষমতায়নে কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। সেই আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিএনপি অনেক চক্রান্ত করেছে। স্বার্থ হাসিলের জন্য তারা দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে চিঠি পাঠিয়েছে।’ 

তিনি বলেন, ‘আজকে যে উন্নয়ন, তা এমনিতে হয়নি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যখন সরকার গঠন করা হয়, তখন এদেশে মাথাপিছু আয় কত ছিল তা দেখুন। এখন তা ২ হাজার ৮০০ ডলার ছাড়িয়েছে। অথচ ২০০৯ সালে যখন সরকার গঠন করা হয়, তখন কী ছিল? আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করেছি। মানুষ আওয়ামী লীগকে সুযোগ দিয়েছে। পরপর তিনবার আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করেছে। এরপরও মানুষ আওয়ামী লীগকে চায়।’

বিএনপি মহাসচিবের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ‘মির্জা ফখরুল বলেছেন- আওয়ামী লীগ জন্মলগ্ন থেকেই সন্ত্রাসী সংগঠন। এটি পাকিস্তানিদের ভাষা। এ বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি প্রমাণ করেছেন তিনি এখনো পাকিস্তানের পেতাত্মা। চেতনায় পাকিস্তানি। বিএনপি এখন হঠাৎ মাঠে নেমেছে। তাদের লক্ষ্য সরকার হঠানো। তাই নানা তালবাহানা করছে। আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছে। আমি বিএনপিকে বলতে চাই কোন আন্দোলন করে লাভ নেই। আন্দোলনের হুমকি আওয়ামী লীগকে দিয়ে কোন লাভ নেই। আওয়ামী লীগ আপনাদের আন্দোলনকে ভয় পায় না।’

আওয়ামী লীগের এ সিনিয়র নেতা বলেন, ‘যারা এখন জাতীয় সরকারের নকশা দিচ্ছে তাদের খায়েস হয়েছে মন্ত্রী, এমপি হওয়ার। আপনাদের সেই স্বপ্ন দিবা স্বপ্নই থেকে যাবে। কোনদিনও পূরণ হবে না। যারা বাংলাদেশকে শ্রীলঙ্কা বানাতে চায় তাদের ষড়যন্ত্র সফল হবে না।’

বাংলাদেশ কোনোদিন শ্রীলঙ্কা হবে না জানিয়ে হানিফ বলেন, ‘শ্রীলঙ্কা পর্যটন নির্ভর দেশ। করোনাকালে কেউ সেখানে ভ্রমণে যায়নি। তাই তাদের দেশে অর্থনৈতিক ধস নেমেছে। আমাদের অনেকগুলো খাত রয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম পোশাক খাত, কৃষি খাত এবং বৈদেশিক রেমিট্যান্স। করোনাকালে পোশাক খাত কিছুটা বাধাগ্রস্ত হলেও এখন আবার আমরা সেটি পুষিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের দেশে কোনোদিন অর্থনৈতিক ধস হওয়ার সম্ভবনা নেই। যতদিন জননেত্রী শেখ হাসিনা আছেন ততদিন এ বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে।’

চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চুর সভাপতিত্বে যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকা ও ফরিদ মাহমুদের সঞ্চালনায় সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি। উদ্বোধক ছিলেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাঈনুল হোসেন খান নিখিল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সংসদের হুইপ আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাবউদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর-পতেঙ্গা) আসনের সংসদ সদস্য এম আব্দুল লতিফ, সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ।

সম্মেলনে বিশেষ বক্তা ছিলেন আওয়ামী যুব লীগের যুগ্ম সম্পাদক ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, মোহাম্মদ বদিউল আলম, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, সাংগঠনিক সম্পাদক, সাইফুর রহমান সোহাগ ও কাজী মাজহারুল ইসলাম প্রমুখ।

বরগুনার আলো