শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

গভীর সমুদ্রে শত শত ট্রলার, সাগর উত্তাল

বরগুনার আলো

প্রকাশিত : ০৪:৩৩ পিএম, ৮ নভেম্বর ২০১৯ শুক্রবার

 


 বাংলাদেশ-ভারত উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’। সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাবে এরই মধ্যে সাগর উত্তাল হয়ে উঠেছে। ফলে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের ‘বুলবুল’ প্রভাবে বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১২টা থেকেই উপকূলীয় উপজেলা পাথরঘাটায় বৃষ্টি শুরু হয়। শুক্রবার (৮ নভেম্বর) ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় বেলা ১১টার দিকে জরুরি সভা ডেকেছে পাথরঘাটা উপজেলা প্রশাসন। সকাল থেকেই পাথরঘাটা আকাশ মেঘলা এবং বৃষ্টিপাত হচ্ছে। বাতাস না থাকায় উপকূলীয় মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে দেশের সমুদ্র বন্দরগুলোকে চার নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি বঙ্গোপসাগরে সব মাছ ধরা ট্রলার পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয় থাকতে বলা হয়েছে। 

এদিকে বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী ও জেলা ফিশিং ট্রলার শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক দুলাল মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে যায় শতশত ট্রলার। আবহাওয়া খারাপ দেখে ইতোমধ্যে বেশ কিছু ট্রলার ঘাটে এলেও  এখনো দেড় শতাধিক ট্রলার গভীর সমুদ্রে রয়েছে। এখন পর্যন্ত তাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

অপরদিকে পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হুমায়ুন কবিরের সভাপতিত্বেত বেলা ১১টায় উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি পাথরঘাটা উপজেলা পরিষদের সম্মেলনে কক্ষে জরুরি সভা ডাকেন। সভায় দুর্যোগ মোকাবিলায় পূর্ব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। 

এদিকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল-এর প্রভাবে বরগুনায় সকাল থেকে মাঝারি ও হালকা বৃষ্টি হচ্ছে। বিকেল ৩টার দিকে বরগুনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক জরুরি সভা অনু‌ষ্ঠিত হয়েছে। এতে বি‌ভিন্ন সরকা‌রি ও বেসরকা‌রি দপ্তরের কর্মকর্তা এবং উন্নয়ন সংগঠনের প্র‌তি‌নি‌ধিরা অংশগ্রহণ করেন। 

বরগুনা জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় জেলা প্রশাসন সব ধরনের উদ্যোগ হাতে নিয়েছে।