• রোববার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ১১ ১৪২৮

  • || ১৭ সফর ১৪৪৩

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
জাতিসংঘে শেখ হাসিনার বক্তব্য সারাবিশ্বে প্রশংসিত: ওবায়দুল কাদের নভেম্বরে এসএসসি ও ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর বাংলায় ভাষণ স্মরণে ই-পোস্টার জরুরি ভিত্তিতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন জোরদারের দাবি প্রধানমন্ত্রীর করোনার টিকাকে ‘বৈশ্বিক জনস্বার্থ সামগ্রী’ ঘোষণার আহ্বান কুয়েত ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠক দেশের বিভিন্ন প্রতিশ্রুতিশীল খাতে মার্কিন বিনিয়োগের আহ্বান এসডিজি’র উন্নতিতে জাতিসংঘে পুরস্কৃত বাংলাদেশ নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী টিকা নেওয়ার পর খোলার সিদ্ধান্ত নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয় নিতে পারবে বঙ্গবন্ধু ভাষণের দিনকে এবারও ‘বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে’ ঘোষণা ফিনল্যান্ডে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোর অংশগ্রহণ চান প্রধানমন্ত্রী `লাশের নামে একটা বাক্সো সাজিয়ে-গুজিয়ে আনা হয়েছিল` টকশোতে কে কী বলল ওসব নিয়ে দেশ পরিচালনা করি না: প্রধানমন্ত্রী উপহারের ঘরে দুর্নীতি তদন্তে দুদককে নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী জিয়াকে আসামি করতে চেয়েছিলাম: প্রধানমন্ত্রী এটা তো দুর্নীতির জন্য হয়নি, এটা কারা করল? ওজোন স্তর রক্ষায় সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতকেও এগিয়ে আসতে হবে ওজোন স্তর রক্ষায় সিএফসি গ্যাসনির্ভর যন্ত্রের ব্যবহার কমাতে হবে

রেকর্ড-ছুঁয়ে উইম্বলডন জিতলেন জকোভিচ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১২ জুলাই ২০২১  

উইম্বলডনের পুরুষ এককের ফাইনালে রেকর্ড-ছোঁয়া ২০তম গ্রান্ড স্ল্যাম জিতেছেন নোভাক জকোভিচ। রোববার (১১ জুলাই) ইংল্যান্ড ক্লাবের সেন্টার কোর্টে মাত্তেও বেররেত্তিনিকে হারিয়ে ইতিহাস গড়েছেন তিনি।

মাত্তেকে ৬-৭(৪-৭), ৬-৪, ৬-৪, ৬-৩ গেমে হারিয়েছেন এই সার্বীয় তারকা। এর মধ্য দিয়ে তিনি ইতিহাস গড়েছেন। অর্থাৎ সর্বোচ্চ গ্ল্যান্ড স্ল্যাম জয়ে রজার ফেদেরার ও রাফায়ের নাদালের রেকর্ড স্পর্শ করেছেন তিনি।

গ্র্যান্ড স্ল্যামের চূড়ান্তে পর্বে প্রথমবারের মতো উঠে ৫-২ গেমে পিছিয়ে পড়েন মাত্তেও বেররেত্তিনি। পরে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে টাইব্রেকারের জিতে যান এই ইতালীয়। কিন্তু চ্যাম্পিয়নের অগ্রযাত্রায় পরে আর বাধা হয়ে দাঁড়াতে সক্ষম হননি।

এ নিয়ে ষষ্ঠবার উইম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ। পাশাপাশি চার গ্র্যান্ড স্ল্যাম যোগ করে ২০টি শিরোপা হাতের মুঠোয় নিয়েছেন তিনি।

২০তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিততে পারলে দুর্দান্ত হবে বলে ম্যাচের আগে জানিয়েছিলেন জকোভিচ। বললেন, এটা তার কাছে খুব দামি কিছু, বিশেষ এক অর্জন হবে।
এ ম্যাচে জয়ে নিজের সব অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েছেন এই সার্বীয় তারকা। কঠিন লড়াইয়ে তিনিই একক সেরা ছিলেন না। ট্রফি জয়ে তাকে বেশি ঘাম ঝরাতে হয়েছে। আর মাত্তেও শেষ পর্যন্ত লড়ে গেছেন সর্বশক্তি দিয়ে।

ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের জকোভিচ বলেন, এখানে লড়াইয়ের চেয়েও বেশি কিছু ছিল। মাত্তেও ও তার পরিবারকে আমি শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। এটি একটি চমৎকার টুর্নামেন্ট ছিল। আমরা একটি কঠিন ম্যাচ খেলেছি।

মাত্তেও’র জন্য এটি ছিল প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনাল। কাজেই সে একটু বিচলিত বোধ করলেও তাকে ক্ষমা করা যায়। কিন্তু অভিজ্ঞ জকোভিচকে সেই তুলনায় শুরু থেকেই নড়বড়ে দেখা গেছে।

শেষ পর্যন্ত জয়ী হলেও দুটো ভুল দিয়ে ম্যাচ শুরু করেন ৩৪ বছর বয়সী জকোাভিচ। জয়ী হওয়ার পর কোর্টে বসেই সাংবাদিকদের তিনি বলেন, রাফায়েল ও রজারকে আমি সম্মান জানাই। ক্যারিয়ারে আমি যাদের বিপক্ষে খেলেছি, তার মধ্যে সবচেয়ে বড় মাপের খেলোয়াড় এই দুই কিংবদন্তি।

জকোভিচ বলেন, তাদের জন্যই আমি এই জায়গায় আসতে পেরেছি। তারাই দেখিয়েছেন, শারীরিক ও মানসিকভাবে এবং কৌশলগতভাবে আরও শক্তিশালী হতে আমাকে কী করতে হবে। গত ১০ বছরের যাত্রাটা ছিল অবিশ্বাস্য। পথচলা এখানেই থামবে না বলেও মন্তব্য করেন এই ক্রীড়াবিদ।

এর আগেও বছরে দুবার তিনটি করে গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী হয়েছিলেন তিনি। ইতিমধ্যে রজার ফেদেরার তাকে অভিনন্দন জানিয়ে টুইটবার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেন, টেনিস চ্যাম্পিয়নশিপের এক বিশেষ যুগে খেলার সুযোগ পেয়ে আমি গর্ববোধ করছি। জকোভিচের পারফরম্যান্স ছিল চমৎকার। ভালো খেলেছে।

বরগুনার আলো