• শুক্রবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৯

  • || ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আওয়ামী লীগ কারও পকেটের সংগঠন নয়: প্রধানমন্ত্রী তারেককে এনে সাজা বাস্তবায়ন করা হবে: শেখ হাসিনা নয়াপল্টনে লাশ ফেলার দুরভিসন্ধি কার্যকর করেছে বিএনপি: কাদের ক্রিকেট দলের জয়ের ধারা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে: রাষ্ট্রপতি ২০২৪-এর জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নির্বাচন, ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী মিরাজের অবিশ্বাস্য সেঞ্চুরি, বাংলাদেশের ২৭১ সমুদ্রকে নিরাপদ রাখতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী চলমান সকল যুদ্ধ থামান: বিশ্ব নেতাদের প্রতি শেখ হাসিনা বৈশ্বিক বাণিজ্যের স্বার্থে সমুদ্রকে নিরাপদ রাখা আবশ্যক ছাত্রলীগের প্রার্থীদের জীবনবৃত্তান্ত যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সমুদ্র সৈকতে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে বিকেলে জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী আজ দ্বিতীয় ওয়ানডে, ভারতের বিপক্ষে আরেকটি সিরিজ জয়ের হাতছানি জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে আ.লীগকে ভোট দেয়: শেখ হাসিনা ব্যাংকে টাকা আছে, সমস্যা নাই: প্রধানমন্ত্রী জনগণ স্বতস্ফুর্তভাবে আ.লীগকে ভোট দেয়: শেখ হাসিনা ছাত্রলীগকে গুজবের জবাব দেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ৩০০ কোটি মানুষের বাজার ধরতে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান কৃষি জমি নষ্ট করে শিল্পকারখানা নয়: প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে অঙ্গীকারবদ্ধ: শেখ হাসিনা

শীতে দেশ-বিদেশ ভ্রমণে

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৩১ অক্টোবর ২০২২  

শীতকাল মানেই ঘোরাঘুরির মৌসুম। দেশ হোক বা বিদেশ- কমবেশি সবাই অক্টোবর মাস থেকেই মেতে উঠে ভ্রমণের উত্তেজনায়। সাধারণত বছর ঘুরে বড় ছুটিটা মানুষ জমিয়ে রাখে শীতকালে দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার জন্য। আর দূরের ভ্রমণ পরিকল্পনা শুরু করার সময়টা এখনই।

দেশের মধ্যে শীতকালে দেখার মত সবচেয়ে জনপ্রিয় জায়গাগুলো হচ্ছে- সেন্ট মার্টিনস, সুন্দরবন, টাঙ্গুয়ার হাওর, সাজেক, বান্দরবান, কাঞ্চনজঙ্ঘা ইত্যাদি।

বছরের খুব সীমিত কিছু সময়ের জন্যই দারুচিনি দ্বীপ খোলা থাকে জনসাধারণের জন্য। তাই উৎসুক জনতার জন্য এটি খুবই রোমাঞ্চকর একটি গন্তব্য। বাংলাদেশের একমাত্র কোরাল দ্বীপ হিসেবে সেন্ট মার্টিনসের সৌন্দর্য একেবারেই অতুলনীয়।

অক্টোবর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত আকাশ পরিষ্কার থাকলে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার বিভিন্ন স্থান থেকে দেখা যায় কাঞ্চনজঙ্ঘা। বছরের এ সময়টাতেই শুধু কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা যায়।

বিশ্বের সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ বন, সুন্দরবনও আছে ঘুরার জায়গার তালিকার মধ্যে। সুন্দরবন ঘুরার এক অভিনব পন্থা হিসেবে বর্তমানে চালু হয়েছে বিলাসবহুল কিছু ক্রুজ। ২ দিন সম্পূর্ণভাবে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত আধুনিক জাহাজের কেবিন থেকে উপভোগ করতে পারবেন সুন্দরবনের বন্য সৌন্দর্য। আধুনিক সুবিধায় স্বয়ংসম্পূর্ণ কেবিন, তিন বেলা সুস্বাদু খাবারের ব্যবস্থা, বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান জাহাজ থেকে নেমে উপভোগ করা- সব সুবিধাই পাওয়া যায় এ ক্রুজগুলোতে।

শীতকালে ঘুরার জন্য আরেকটি সুন্দর জায়গা হল টাঙ্গুয়ার হাওর। মেঘহীন আকাশের নিছে হাওরের শান্ত নীল পানি কেবলমাত্র এ মৌসুমেই পাওয়া যায়। টাঙ্গুয়ার হাওরেও এখন পাওয়া যায় অভিজাত হাউসবোট এ অভিনব এক অভিজ্ঞতা। এসব রোমাঞ্চকর ট্যুরগুলো একই জায়গায় পেতে দেখে নিতে পারেন গোযায়ান। সম্পূর্ণ অনলাইনে নিজের ইচ্ছামত ট্যুর সাজিয়ে নেওয়ার সুযোগও আছে তাদের প্লাটফর্মে।

সুদীর্ঘ ২ বছর যাবতীয় সব বিনোদনমূলক ভ্রমণ বন্ধ থাকায় অনেকেই এখন দেশের তুলনায় বিদেশ ভ্রমণটাই বেশি পছন্দ করছেন। কম খরচের মধ্যে এখন পার্শ্ববর্তী দেশ ইন্ডিয়া ঘুরে আসা সম্ভব। সড়কপথে পার হয়েই চলে যাওয়া যায় কোলকাতা, দার্জিলিং কিংবা সিকিমে। তবে আরেকটু দূরে যেতে চাইলেই বিমানের বিকল্প নেই। নেপাল, থাইল্যান্ড ইত্যাদিও এখন বেশ জনপ্রিয় গন্তব্য। তবে ফ্লাইট ছাড়া যাওয়া সম্ভব না বলে এ গন্তব্যগুলো কিছুটা নাগালের বাইরে চলে যায় অনেকের জন্যই।

বিদেশ ভ্রমনে বাজেটের অধিকাংশই দখল করে রাখে ফ্লাইট। এমনকি এ খরচের কারণেই অনেকে বিদেশ ভ্রমণ স্থগিত করতে বাধ্য হন। এ সমস্যার সমাধান করতে একটি সেবা আজকাল বেশ জনপ্রিয়, সেটা হল ০% ই এম আই সেবা। জীবনযাপনের বাকি সব প্রয়োজনীয় উপাদানের পাশাপাশি এখন ভ্রমণ বিষয়েও পাওয়া যাচ্ছে ই এম আই সুবিধা, যেটি ব্যবহার করে এখনি ঘুরতে যেয়ে, পেমেন্ট করা সম্ভব প্রয়োজনমত সময় নিয়ে। বর্তমানে গোযায়ান ই একমাত্র ভ্রমণ বিষয়ক অনলাইন প্লাটফর্ম যেখানে ফ্লাইটের ক্ষেত্রেও ০% ই এম আই সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে। তাই ভ্রমণ সম্ভব যখন ইচ্ছা তখনই।

ফ্লাইটের পরেই ভ্রমণ সম্পর্কিত সবচেয়ে বড় মাথাব্যথা হোটেল নিয়ে। কোনো জায়গায় যাওয়ার আগে সেখানের হোটেলের অবস্থান, খাবারের ব্যবস্থা, যাবতীয় সুযোগ সুবিধা ইত্যাদি জানা বেশ কঠিন কাজ। এক্ষেত্রে অনেকেই বিদেশি ওয়েবসাইটের সাহায্য নিয়ে থাকেন। কিন্তু এ ওয়েবসাইটগুলোতে পেমেন্টের সুযোগ খুবই সীমিত। প্রথমত অনলাইনে টাকা পরিশোধের ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় বিদেশি ক্রেডিট কার্ড কিংবা ডলার এন্ডোরস্মেন্ট করা ক্রেডিট কার্ড, যা অধিকাংশ দেশি নাগরিকের কাছেই নেই। আবার গন্তব্যে পৌঁছে পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে পরপর দুইবার মুদ্রা পরিবর্তনে বেশ খানিকটা অর্থ নষ্ট হয়। ফলে অনলাইনে যেই দাম দেখা যায়, খরচ হয় তারও বেশি। এ সমস্যার সমাধান করতে প্রথমবারের মত দেশীয় কোন ওয়েবসাইটে প্রায় ৭ লক্ষ হোটেলের সমাহার নিয়ে এসেছে গোযায়ান। পছন্দমত হোটেল পাওয়ার পাশাপাশি দেশে প্রচলিত যেকোন পেমেন্ট মাধ্যম ব্যবহার করে এখানে টাকা পরিশোধ করা সম্ভব। ফলে প্রয়োজন নেই কোনো  বাড়তি খরচের। চাইলে এখানে ব্যবহার করতে পারবেন ০% ই এম আই সুবিধাটিও, যা বিদেশি ওয়েবসাইটে সম্ভব হয়না।

এ শীতে ভ্রমণের ইচ্ছা যেখানেই থাকুক, এখন পথে আর কোন বাধা নেই। অপেক্ষা শুধু যথাযথ পরিকল্পনার। ইচ্ছা যেখানেই হোক, ভ্রমণ চলুক বাধাহীন।

বরগুনার আলো