• শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৭ ১৪৩১

  • || ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ

ছেলের কোলে চড়ে ভোট দিলেন শতবর্ষী শীতালক্ষী

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৫ জুন ২০২৪  

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ছেলের কোলে চড়ে ভোট দিলেন শতবর্ষী শীতালক্ষী রানী। বুধবার (৫ জুন) সকাল ৯টার দিকে ছেলে পরেশ চন্দ্র শীলের কোলে চড়ে বরগুনার তালতলী উপজেলার ছোট অঙ্কুজানপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন ওই বৃদ্ধা। এ বিষয়ে ছেলে পরেশ চন্দ্র শীল জানান, কোলে থাকা বৃদ্ধা তার শতবর্ষী মা শীতালক্ষী রানী। অনেকদিন আগেই হারিয়ে ফেলেছেন হাঁটা চলার শক্তি। তারপরও ভোট দেয়ার জন্য উচ্ছ্বাসিত ছিলেন মা। এ জন্য তাকে কোলে করে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে এসেছেন পরশ।

পরেশ চন্দ্র শীল বলেন, ‘তালতলী উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের অঙ্কুজানপাড়া গ্রামে আমাদের বাড়ি। আমার বাবা প্রেমানন্দ শীল বেশ কয়েকবছর হলো মারা গেছেন। কয়েকবছর হলো আমার মাও শয্যাশায়ী। তবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মায়ের ভোট দেয়ার প্রতি ভীষণ আগ্রহ ছিল। এজন্য আমি কোলে করে তাকে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে এসেছি। আমি সৌভাগ্যবান, এমন কজনার ভাগ্যে মাকে নিয়ে ভোটকেন্দ্রে আসার সুযোগ হয়? আমি সেই সুযোগটি পেয়েছি।’

ভোট দেয়া শেষে শীতালক্ষী রানী বলেন, ‘হলেও হতে পারে এটাই আমার জীবনের শেষ ভোট। তাই যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিতে আমি ভুল করিনি। ভোট দিতে কোনো অসুবিধা হয়নি বলেও জানান ওই বৃদ্ধা।’

বরগুনার আলো