• মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৯

  • || ০৯ মুহররম ১৪৪৪

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে বঙ্গমাতার মনোভাব প্রতিফলিত হয়েছে বঙ্গমাতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা স্বাধীনতার সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর সারথি ছিলেন আমার মা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতা কঠিন দিনগুলোতে ছিলেন দৃঢ় ও অবিচল: রাষ্ট্রপতি ফজিলাতুন নেছা মুজিব দৃঢ়চেতা-বলিষ্ঠ চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ বাংলাদেশে সহায়তা অব্যাহত রাখবে চীন: ওয়াং ই চীনে ৯৯ শতাংশ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছি মায়ের দুধ শিশুর সর্বোত্তম খাবার: রাষ্ট্রপতি শেখ কামাল ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী: প্রধানমন্ত্রী শেখ কামাল ছিলেন ক্রীড়া ও সংস্কৃতিমনা সুকুমার মনোবৃত্তির মানুষ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মর্যাদাকে সমুন্নত করবে যুবসমাজ ‘শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন’ ঘাতকরা আজও তৎপর, আমাকে ও আ’লীগকে সরাতে চায়: প্রধানমন্ত্রী বিচারকদের সততা-নিষ্ঠা নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি একনেকে ২ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন বাঁধ টেকসই করতে বেশি করে ঝাউগাছ লাগানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার’ পেলো বাংলাদেশ বিএনপির আমলে মানুষের ভোটের অধিকার ছিল না: প্রধানমন্ত্রী

শরীরের রোগ আগাম জানাবে ‘ন্যানুট্যাক’ ট্যাটু

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২ আগস্ট ২০২২  

শরীরের কোনো অসুখ হতে যাচ্ছে। সেই অসুখ আগেভাগে জানিয়ে দেবে একটি প্রযুক্তি সমৃদ্ধ ট্যাটু। এমনি ট্যাটু আবিষ্কার করতে যাচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া। এ নিয়ে কাজ করছে দেশটির বিজ্ঞানীদের একটি দল।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিউলের ডিউজিউন শহরের কোরিয়া এডভান্স ইনস্টিটিউট অব সাইন্স অ্যান্ড ট্যাকনোলজির বিজ্ঞানীরা তরল ধাতব এবং কার্বন ন্যানুটিউবের সমন্বয়ে একটি ইলেকট্রিনিক কালির ট্যাটু নিয়ে কাজ করছেন। এটি বায়ো ইলেট্রোড হিসেবে কাজ করবে।

ট্যাটুটি একটি ইলেট্রোকার্ডিওগ্রাম যন্ত্র বা অন্যান্য বায়োসেনন্সর ট্যাটু থেকে রোগীর হার্টের অবস্থা, শরীরের গ্লোকোজ ও লেকটেট এর মতো অন্যান্য রোগের সংকেত পর্যবেক্ষণ করা যাবে।

গবেষকরা মনে করছেন, তারা বায়ো সেন্সরগুলো বিতরণের লক্ষ্য পূরণ করতে পারবেন।

এ প্রকল্পের দল নেতা অধ্যাপক স্টিভ পার্ক বলেন, কালির সঙ্গে আমরা একটি তারবিহীন সংযোগ যুক্ত করতে পারব বলে আশা রাখছি। এতে আমরা শরীরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারব অথবা আমরা সংকেত ফেরত পাঠাতে পারব এবং এটি দিয়ে আমাদের শরীর থেকে বাইরের যন্ত্রতেও সংকেত পাঠানো সম্ভব।

প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, এর ধরনের পর্যবেক্ষণ ট্যাটু যেকোনো জায়গায় কাজ করবে এমনকি রোগীর বাড়িতেও এটি সচল থাকবে।

ট্যাট আঁকার জন্য কালি হচ্ছে নিরাপদ এবং কালির কণাগুলো গ্যালিয়ামের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে যা থার্মোমিটারে ব্যবহার করা হয়। কার্বন ন্যানুটিউব দ্বারা প্লাটিনামকে সাজানো হয়েছে যা সচল থাকার জন্য বিদ্যুৎ পরিচালনায় সাহায্য করে থাকে।

পার্ক বলেন, ট্যাটু ত্বকে লাগানোর পর তা ঘঁষে তোলা সম্ভব নয়। এমনকি কোনো তরল ধাতব দিয়ে তা উঠানো যাবে না।

বরগুনার আলো